সংবাদ শিরোনাম
নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগে হবিগঞ্জ আইনজীবি সমিতি থেকে দুই আইনজীবি বরখাস্ত | গায়ে হলুদ শেষ, রাতে বিয়ে সৌম্য সরকারের | ইবির ৮ শিক্ষার্থীর গলায় প্রধানমন্ত্রীর স্বর্ণপদক | যশোর ছাত্রাবাস থেকে অস্ত্র-গুলি- মাদকসহ গ্রেফতার-৩ | মণিরামপুরে আম বাগানের গাছ কাটলো দৃর্বৃত্তরা | বেলকুচিতে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ ও হুইল চেয়ার বিতরণ | জাতির জনকের সমাধিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের নব-নির্বাচিত সভাপতির শ্রদ্ধা নিবেদন | টাঙ্গাইল বিআরটিএর ছয় দালাল আটক, তিনজন কারাগারে | নওয়াপাড়ায় মাদ্রাসা শিক্ষকের হাতে শিশু শিক্ষার্থীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগ | ঢাকায় কম্বোডিয়ার প্রয়াত রাজার নামে সড়ক |
  • আজ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সময় পেলেই শ্রমিকদের সাথে মাটি কাটেন ইউপি চেয়ারম্যান মাইকেল!

২:৪৭ অপরাহ্ণ | বুধবার, জুন ১৯, ২০১৯ ঢাকা, দেশের খবর

এইচ এম মেহেদী হাসানাত, ষ্টাফ রিপোর্টার, গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় গত দুই দিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কয়েকটি ছবি বেশ ভাইরাল হয়েছে।

ছবিতে উপজেলার কলাবাড়ি ইউনিয়ের বার বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা কে শ্রমিকদের সাথে মাটি কাটতে দেখা যায়। মাইকেল ওঝাকে এ ধরণের কাজ প্রায়ই করতে দেখা যায় বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী। অপরদিকে এ ধরণের কাজ করে তিনি এলাকায় খুব প্রশংসিত হচ্ছেন।

জানাগেছে, সম্প্রতি উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে অতিদরিদ্রেদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচিতে (৪০ দিনের কর্মসূচি) ১ কোটি ৬৮ লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সে মোতাবেক উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে ১১ টি ইউনিয়নে ৩৬ টি প্রকল্পের অনুকূলে বরাদ্দকৃত টাকা বন্টন করা হয়। এর মধ্যে কলাবাড়ি ইউনিয়নে ৩ টি প্রকল্পে ১৯ লক্ষ ৮হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়।

উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে এই ৪০ দিনের কর্মসূচির কাজ নিয়ে নানা অভিযোগ থাকলেও কলাবাড়ি ইউনিয়নে সঠিক ভাবে কাজ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

ইউনিয়নটির চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা প্রতিদিনই ৩টি প্রকল্পের কাজ তদারকি করেছেন। বিভিন্ন সময়ে তিনি নিজেই শ্রমিকদের সাথে মাটি কেটেছেন।

কলাবাড়ি ইউনিয়নের কলাবাড়ি গ্রামের লাল চাঁদ বিশ্বাস ও বিপুল বিশ্বাস জানান, আমাদের গ্রামের বিশ্বাসবাড়ি হইতে বালাবাড়ি ভিটা পর্যন্ত ৪০ দিনের কর্মসূচির মাধ্যমে একটি রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। এই রাস্তা দিয়ে আমরা প্রায় হাজার খানেক লোক সুন্দর ভাবে চলাচল করতে পারবো। এখানে যখন এই রাস্তার কাজ করা হয় আমাদের চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝাকে শ্রমিকদের সাথে মাটি কাটতে দেখেছি।

কাফুলাবাড়ি গ্রামের সুশীল বাড়ৈ বলেন, চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা বিভিন্ন সময় এ ধরণের জনহিতকর কাজকর্মে শ্রমিকদের সাথে নিজেই অংশগ্রহণ করেন। এ জন্য আমরা এলাকাবাসী তাকে ধন্যবাদ জানাই।

চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা বলেন, আমি একজন নিন্ম মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে। পরিবারের প্রয়োজনে মাছ ধরা, ধান রোপন, মাটি কাটা থেকে শুরু করে অনেক কাজই করেছি। এলাকায় যখন এ ধরণের কাজ হয় তখন আমি উপস্থিত থেকে কাজগুলো তদারকি করি। পরিষদেও যদি জরুরী কোন কাজ না থাকে তাহলে শ্রমিকদের সাথে কাজে অংশগ্রহণ করি।

Loading...