যে কারণে হিন্দু ধর্ম ছেড়ে ইসলাম গ্রহণ করলেন কটিয়াদীর অর্জুন সূত্রধর

২:১৯ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, জুলাই ২, ২০১৯ আলোচিত

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি :: কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে অর্জুন সূত্রধর নামে এক হিন্দু ব্যক্তি স্ত্রী-সন্তানদের সনাতন ধর্মে রেখে নিজে শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করেছেন। সম্প্রতি তিনি কিশোরগঞ্জের প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট নোটারী পাবলিক এফিডেভিটের মাধ্যমে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত হবার ঘোষণা দেন।

এফিডেবিটে অর্জুন সূত্রধর নাম পরিবর্তন করে মোঃ সোলাইমান মিয়া নাম রেখেছেন। তিনি সোলাইমান নামে পরিচিত হতে চান। তিনি কটিয়াদী পৌর শহরের চড়িয়াকোনা গ্রামের গণেশ সূত্রধর ও মহামায়া সূত্রধরের ছেলে। তার পরিবারে স্ত্রী, একটি করে পুত্র ও কন্যা সন্তান রয়েছে। স্ত্রীর নাম শেফালী সরকার। তার ছেলের নাম অজয় সূত্রধর এবং মেয়ের নাম মাম্মী সূত্রধর। ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পর স্ত্রীসহ দুই সন্তান তার শ্বশুর বাড়ীতে অবস্থান করছেন। মোঃ সোলাইমান বর্তমানে উপজেলার মুসুয়া বাজারে বসবাস করছেন।

৩৮ বছর বয়সী মোঃ সোলাইমান (অর্জুন সূত্রধর) বলেন, প্রায় ৭ বছর ধরে ইসলামিক বিভিন্ন সভা সমাবেশে অংশগ্রহণ করে ইসলাম সম্পর্কে বিভিন্ন ইসলামী চিন্তাবিদদের বয়ান শুনে শান্তি প্রিয় ইসলাম ধর্ম আমার মনে আকৃষ্ট হয়। সে কারণেই সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি।

তিনি আরও বলেন, ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার পর বিভিন্ন আলেমদের সাথে যোগাযোগ করে অচিরেই ইসলামী বিধি যেমন নামাজ, রোজা পালন করতে সচেষ্ট হব।

এদিকে তার স্ত্রীসহ দুই সন্তান ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পর থেকে আমি আলাদা হয়ে পড়ি। তবে সম্পর্ক ছিন্ন করিনি। যদি আমার স্ত্রী ইসলাম গ্রহণ করতে রাজী হয় তবে তাকে ইসলামী শরীয়ত বিধান মতে পুনরায় বিয়ে করে দাম্পত্য জীবন শুরু করবো। এজন্য তাকে আমি কিছু দিনের সময় দিয়েছি। অন্যথায় অন্য কোন মুসলিম নারীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হবো।