হৃতিক রোশন প্রতারক!

৫:০৭ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ৫, ২০১৯ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক- হৃতিক রোশনের সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছে না। একের পর এক বিতর্কে জড়িয়ে পড়ছেন এই বলিউড তারকা। ১২ জুলাই মুক্তি পাচ্ছে তাঁর বহু প্রতীক্ষিত ছবি ‘সুপার থার্টি’। আর তার আগে নতুন বিতর্কে জড়ালেন। এবার তাঁর বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করা হয়েছে।

কয়েক দিন আগে ছোট বোন সুনয়না হৃতিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছিলেন। সুনয়নার অভিযোগ, মুসলিম ছেলেকে ভালোবাসার কারণে হৃতিক তাঁর ওপর অত্যাচার করছেন। এদিকে আরেক বলিউড তারকা কঙ্গনা রনৌতের সঙ্গেও হৃতিক রোশনের সম্পর্ক যে সাপে-নেউলের মতো, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

এবার হৃতিক রোশনের ফিটনেস সেন্টারকে ঘিরে নতুন বিতর্ক তৈরি হয়েছে। শশীকান্ত নামে হায়দরাবাদের এক অধিবাসী অভিযোগ করেছেন, হৃতিক রোশনের ফিটনেস সেন্টারে প্রয়োজনের তুলনায় বেশি মানুষকে ভর্তি করা হয়েছে।

আর নিবন্ধনের সময় তাঁকে যে স্লট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল, পরে তা তাঁকে দেওয়া হয়নি। প্রতিষ্ঠানটি তাঁর সঙ্গে প্রতারণা করেছে। আর শশীকান্ত যখন এর বিরোধিতা করেন, তখন অ্যাপের মাধ্যমে স্লট বুক করার সুবিধা থেকে তাঁকে বঞ্চিত করা হয়। বেঙ্গালুরুর ‘কল্ট ডট ফিট হেলথকেয়ার প্রাইভেট লিমিটেড’ নামের এই জিমের শুভেচ্ছাদূত হৃতিক রোশন।

হৃতিক রোশনহৃতিক রোশনসময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছে না হৃতিক রোশনের। একের পর এক বিতর্কে জড়িয়ে পড়ছেন এই বলিউড তারকা। ১২ জুলাই মুক্তি পাচ্ছে তাঁর বহু প্রতীক্ষিত ছবি ‘সুপার থার্টি’। আর তার আগে নতুন বিতর্কে জড়ালেন। এবার তাঁর বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করা হয়েছে। কয়েক দিন আগে ছোট বোন সুনয়না হৃতিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছিলেন।

সুনয়নার অভিযোগ, মুসলিম ছেলেকে ভালোবাসার কারণে হৃতিক তাঁর ওপর অত্যাচার করছেন। এদিকে আরেক বলিউড তারকা কঙ্গনা রনৌতের সঙ্গেও হৃতিক রোশনের সম্পর্ক যে সাপে-নেউলের মতো, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

এবার হৃতিক রোশনের ফিটনেস সেন্টারকে ঘিরে নতুন বিতর্ক তৈরি হয়েছে। শশীকান্ত নামে হায়দরাবাদের এক অধিবাসী অভিযোগ করেছেন, হৃতিক রোশনের ফিটনেস সেন্টারে প্রয়োজনের তুলনায় বেশি মানুষকে ভর্তি করা হয়েছে। আর নিবন্ধনের সময় তাঁকে যে স্লট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল, পরে তা তাঁকে দেওয়া হয়নি।

প্রতিষ্ঠানটি তাঁর সঙ্গে প্রতারণা করেছে। আর শশীকান্ত যখন এর বিরোধিতা করেন, তখন অ্যাপের মাধ্যমে স্লট বুক করার সুবিধা থেকে তাঁকে বঞ্চিত করা হয়। বেঙ্গালুরুর ‘কল্ট ডট ফিট হেলথকেয়ার প্রাইভেট লিমিটেড’ নামের এই জিমের শুভেচ্ছাদূত হৃতিক রোশন।

শশীকান্ত আরও অভিযোগ করেন, ভর্তির সময় বলা হয়েছে, জিমের সবাইকে সময় দেবেন ও প্রশিক্ষণ দেবেন হৃতিক রোশন। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি সেই প্রতিশ্রুতি রাখেনি।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে তিনি ১৭ হাজার ৪৯০ রুপি জমা দিয়েছিলেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত তিনি কোনো স্লট পাননি। এ ছাড়া জিম কর্তৃপক্ষ তাঁকে এক বছরের মধ্যে ওজন কমানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে হায়দরাবাদের কেপিএইচবি থানা থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে, হৃতিক রোশন এবং ‘কল্ট ডট ফিট’-এর তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করেছেন শশীকান্ত নামের এক ব্যক্তি। কেপিএইচবি থানার পুলিশ পরিদর্শক লক্ষ্মী নারায়ণ জানিয়েছেন, সেই ব্যক্তির অভিযোগ ‘কল্ট ডট ফিট’ প্রতিষ্ঠান সব প্রতিশ্রুতি রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। হৃতিক রোশন এই প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছাদূত। মূলত এই বলিউড সুপারস্টারের জন্যই ‘কল্ট ডট ফিট’ জিমে বেশিসংখ্যক মানুষ ভর্তি হয়েছেন। হৃতিক রোশনের বিজ্ঞাপনটি সবাইকে ভর্তি হওয়ার জন্য প্রভাবিত করেছে।