হবিগঞ্জে নৌকায় ধর্ষণের পর গৃহবধূকে হত্যা: স্বামীসহ ৪ জনের যাবজ্জীবন

৬:৩১ অপরাহ্ণ | সোমবার, জুলাই ৮, ২০১৯ আলোচিত

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি- ‘হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে ধর্ষণের পর গৃহবধূ ফাতেহা হত্যা মামলায় স্বামীসহ চার আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (৮ জুলাই) বিকেলে হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ হালিম উদ্দিন চৌধুরী এ রায় ঘোষণা করেন। এসময় দন্ডপ্রাপ্তরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে রাতের বেলা নদীতে নৌকায় নিয়ে ধর্ষণের পর গৃহবধূ ফাতেহা হত্যা মামলায় নবীগঞ্জ উপজেলার বাশডর গ্রামের বাসিন্দা ও নিহত নারীর স্বামী সাইফুল ইসলাম (৩২), নবীগঞ্জ পৌরসভার হরিপুর এলাকার মৃত আব্দুন নূরের ছেলে আব্দুল মন্নাফ (৫২), একই এলাকার বজলা মিয়ার ছেলে বাবুল মিয়া (৩৫) ও আনমনু গ্রামের আব্দুল খালিকের ছেলে রাজু আহমেদ (৪৫) কে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

আদালত সূত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জ পৌরসভার হরিপুর এলাকার বাসিন্দা ফাতেহার সঙ্গে বিয়ের পর থেকেই শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করতেন সাইফুল ইসলাম। ২০০২ সালের ২৬ আগস্ট রাতে সাইফুল ও তার সহযোগিরা ফাতেহাকে ফুসলিয়ে পার্শ্ববর্তী নদীতে একটি নৌকায় নিয়ে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরদিন নিহত গৃহবধূর বোন রৌশনা খাতুন বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

হবিগঞ্জের জজ আদালতের পরিদর্শক আল-আমিন হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।