কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়লেন ধোনি, ভিডিও ভাইরাল

২:৫২ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ১১, ২০১৯ খেলা

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- ২০০৪ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে অভিষেক তাঁর। অভিষেকটা হয়েছিল দুঃস্বপ্নের মতো, এক বল খেলে কোনো রান করার আগেই ফিরেছিলেন রান আউট হয়ে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনালেও হলেন রান আউট। এ দুটি আউটের মধ্যে যোগসূত্র খুঁজে পাচ্ছেন অনেকে। ক্যারিয়ারের শুরু এবং ‘শেষ’—দুটি ম্যাচেই তাহলে রান আউট হতে হলো মহেন্দ্র সিং ধোনিকে?

ধোনির অবসরের ঘোষণা এখনো আসেনি। ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলিও বলেছেন, ‘অবসরের ব্যাপারে ধোনি এখনো কিছু জানাননি তাঁদের।’ কিন্তু ভারত সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেওয়ার পর প্রশ্নটা বেশ জোরেশোরেই উঠেছে, বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচটা কি তবে খেলে ফেললেন ভারতের ইতিহাসে সেরা এ ফিনিশার?

বুধবার পাঁচ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর ২৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। সেমিফাইনালের মতো ম্যাচে প্রথমে ৩ উইকেট হারিয়ে ভারত যখন বিপদে, তখনও ধোনি কেন ব্যাটিংয়ে নেই? এমন প্রশ্ন উঠেছিল কমেন্ট্রি বক্স থেকেও। তবে খেলায় শুভ সমাপ্তি টানতে রিজার্ভ ডেতে সম্পূর্ণ দায়িত্বও এসে পড়ে ধোনির কাঁধে। উইকেটের একপ্রান্ত সামলে নিচ্ছিলেন এই সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক। যদিও ম্যাচ ফিনিশ করতে পারেননি।

জাদেজাকে সঙ্গে নিয়ে একেবারে ফিনিশিং লাইনের কাছাকাছি পৌঁছে যান মি. ফিনিশার। কিন্তু স্কোয়ার লেগ থেকে মার্টিন গাপ্টিলের অবিশ্বাস্য থ্রো। ক্রিজে ঢুকতে মরিয়া ধোনি তখন ইঞ্চি খানেক বাইরে। আর সেখানেই স্বপ্ন শেষ হলো টিম ইন্ডিয়ার। ফেরার আগে ৭২ বলে ৫০ রান করেন তিনি। তবে এই অর্ধশতক যে মোটেই সুখকর ছিল না ধোনির জন্য তা বেশ বোঝা যাচ্ছিল সাজঘরে যখন ফিরছিলেন তিনি।

কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়েন ধোনি। আর ধোনির সেই কান্না সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে রীতিমতো ভাইরাল। এ নিয়ে চলছে আলোচনার ঝড়।

ধোনি যখন কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়ছিলেন, সেই ছবি টিভি স্ক্রিনে ফুটে ওঠে। আর তা দেখে গ্যালারির ভারতীয় সমর্থকরাও আপ্লুত হয়ে ওঠেন। অনেকেই কান্নারত ধোনির আবেগের সঙ্গে যুক্ত হন। ছোট্ট শিশুও বাদ যায়নি তখন। ধোনির আউটের পর ম্যাচ ছিটকে যাওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারে ওই খুদে সমর্থকও। অভিভাবককে জড়িয়ে ধরে সেও কান্নায় ভেঙে পড়েন। স্ক্রিনে তা দেখে গোটা বিশ্ব।

ভিডিও দেখুন এখানে-