‘এটা মেনে নেয়া কষ্টকর’, নতুন নিয়মে সেমিফাইনাল চান কোহলি

৩:১৮ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ১১, ২০১৯ খেলা

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৮ রানে হেরে বিশ্বকাপের স্বপ্ন ভেঙে গেছে ভারতের। গত বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে তাদের স্বপ্ন কেড়ে নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এবার বিরাট কোহলিদের হৃদয় চুরমার হলো কিউইদের হাতে। এই নিয়ে বিশ্বকাপ ইতিহাসে ৪ বার শেষ চার থেকে বিদায়ের ইতিহাস লিখলো ভারত।

রাউন্ড রবিনে দুর্দান্ত ব্যাটিং করলেও ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে নিউজিল্যান্ড বোলারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি কোহলি-রোহিত শর্মারা। দলীয় তিন অঙ্কের ঘর পেরোনোর আগেই টপ-অর্ডারের ছয় ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে ফেলে তারা। বিশ্বের সেরা ব্যাটিং লাইন-আপের এমন তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ার পেছনে কোহলি নিজেদের ব্যাটিং ব্যর্থতা ও ভাগ্যকে দায়ী করেছেন।

ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘এটা মেনে নেয়া কষ্টকর। সারা টুর্নামেন্টে ভাল খেলেও ৪৫ মিনিটের খারাপ ক্রিকেট আমাদের টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে দিয়েছে। নিউজিল্যান্ডের এই জয় প্রাপ্য। তারা আমাদেরকে খুব চাপে রেখেছিল। এই সময়, আমাদের শট সিলেকশন আরও ভাল হতে পারতো।’

এদিকে ম্যানচেস্টারে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে এমন স্বপ্ন ভেঙে যাওয়ার পর বিশ্বকাপের ফরম্যাটে পরিবর্তন চেয়েছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। বুধবার ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে কোহলি বলেন, ২০২৩ বিশ্বকাপে নকআউট পর্বে পরিবর্তন আনা প্রয়োজন।

গ্রুপ পর্বে সেরা হয়ে একটা দল একটা বাজে দিনের জন্য বিদায় নেবে কেন? ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের এমন কথার সঙ্গে সুর মিলিয়ে কোহলি বলেন, ‘যদি পয়েন্ট তালিকার এক নম্বরে থাকার কোনো গুরুত্ব থাকে, তাহলে এখানে একটা যুক্তিসঙ্গত জায়গা আছে আমার কথার, তবে আমি জানি না কি বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে।’

কোহলি বলেন, ‘আপনি পয়েন্ট তালিকার এক নম্বরে আছেন, এরপর অল্প সময়ের জন্য বাজে খেললেন এবং আপনি বাদ, এটা আপনাকে মেনে নিতে হচ্ছে।’

সেমিফাইনালে ভারতের বিদায়ের পরে কথা উঠছে, বিশ্বকাপের এই ফরম্যাটটা ঠিক আছে কি না। গ্রুপ পর্বে সেরা হয়ে একটা দল একটা বাজে দিনের জন্য বিদায় নেবে কেন? সৌরভ উদাহরণ দেন আইপিএলের।

সৌরভ গাঙ্গুলি বলেন, ‘কিছু একটা ভাবা দরকার। আইপিএলের প্রক্রিয়াটা বেশ ভাল। প্রথম দু’টো দল দু’টো করে সুযোগ পায়। একটা বাজে দিন এভাবে শেষ করে দিতে পারে না একটা ভাল দলকে।’

এদিকে বিদায় নেওয়ার পর টুর্নামেন্টের ফরম্যাট নিয়ে এর আগেও প্রশ্ন তুলেছে ভারত। ২০০৭ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের কাছে হেরে গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে পড়েছিল ভারত। সে বিশ্বকাপে একেকটি গ্রুপে ছিল চারটি করে দল। অর্থাৎ ভারত তিনটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিল। ক্রিকেটপাগল দেশটি ওই বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেওয়ার পর আইসিসির বিশ্বকাপ–বাণিজ্যে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছিল।

এরপর ওয়ানডে বিশ্বকাপে চার দল নিয়ে একেকটি গ্রুপের সে ফরম্যাট আর ফিরিয়ে আনেনি আইসিসি। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অনুরোধ কিংবা আদেশেই ফরম্যাট পাল্টে ফেলে আইসিসি। ২০১১ ও ২০১৫ বিশ্বকাপে দুটি করে গ্রুপে সাতটি করে দল খেলেছে। এ দুটি টুর্নামেন্টের মধ্যে প্রথমটিতে ভারত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর গত টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠেছিল। আর এবার গ্রুপ পর্বে ৯টি করে ম্যাচ পেয়েছে প্রতিটি দল। এবারও সেমি থেকে ছিটকে পড়ে ভীষণ হতাশ কোহলি।