পদ্মা সেতুতে মানুষের ‘মাথা লাগার’ গুজবের পেছনে বিএনপি: কাদের

৬:০৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ১১, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- পদ্মাসেতু তৈরিতে এক লাখ মানুষের মাথা লাগবে বলে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে যে গুজব ছড়ানো হচ্ছে, তার পেছনে বিএনপির হাত দেখছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, সরকারকে বিপদে ফেলতে গুজবের ডালপালা বিস্তার করছে। পদ্মা সেতু নিজস্ব অর্থায়নে হচ্ছে- এটা তারা (বিএনপি) সহ্য করতে পারছে না, গায়ে জ্বালা ধরছে। তাই তারা বলে লক্ষ মানুষের মাথা ও রক্তের প্রয়োজন।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) দুপুরে সেতু ভবনের কনফারেন্স রুমে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সকল কিছুতে ব্যর্থ হয়ে বিরোধীরা গুজব ছড়াচ্ছে। পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা-রক্ত লাগবে এমন একটি অদ্ভুত গুজব ছড়ানো হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, যা অবিশ্বাস্য এবং কল্পকাহিনীর মত। এটা নিয়ে সারা দেশে একটা আতঙ্ক সৃষ্টি করতে চান তারা। আমি আশা করি খুব শিগগিরই পরিষ্কার হয়ে যাবে কারা এর সাথে জড়িত।

তিনি বলেন, কারা এসব গুজব ছড়ালো তাদের খুঁজে বের করার জন্য ইতোমধ্যে আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা, র্যা ব দায়িত্ব নিয়েছে। দেশনেত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন—এ ধরনের একটা অবৈজ্ঞানিক-অবাস্তব বিষয় নিয়ে গুজব কারা ছড়াচ্ছে, তা বের করার ব্যবস্থা করতে হবে, তাদের ব্যাপারে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে।

পদ্মা সেতু নিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীএকজনকে গ্রেপ্তার করেছে, এ ব্যাপারে মন্ত্রী বলেন, যাকে ধরা হয়েছে তিনি কোন রাজনৈতিক সংগঠনের কিনা সেটা এখনো জানা যায়নি। তবে অনুসন্ধান চলছে, এটা গোপন রাখার কোন বিষয় না, আপনারা জানতে পারবেন। যারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সত্যকে চাপা দিয়ে এ ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে, গুজব ছড়াচ্ছে তাদের নিশ্চয়ই শাস্তি পেতে হবে।

বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা কি বিভ্রান্ত হয়েছেন, যে মানুষের কল্লা লাগবে। এতো রক্ত দরকার। এসকল অপপ্রচার, কি নির্মম নিষ্ঠুর এদের রাজনীতি! আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ; এখন শুরু করেছে অপপ্রচার। অপপ্রচার ছাড়া এদের কোনো পুঁজি নেই। এই অপপ্রচারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।