সংবাদ শিরোনাম
প্রেমপত্র দিতে গিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি! | মসজিদের বারান্দায় পড়াশোনা করছেন মুশফিক! | ফেলে দেওয়া নবজাতক শিশুকে ড্রেন থেকে টেনে তুলে প্রাণ বাঁচালো কুকুর | ঠাকুরগাঁওয়ে ফেন্সিডিল সেবনের সময় ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার | পদ্মায় গোসল করতে গিয়ে ভেসে গেল নবদম্পতি! | বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নারী হত্যার ঘটনায় আটক ৩ | বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নারী হত্যার ঘটনায় আটক ৩ | ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলার প্রস্তুতি | ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলের জন্যই প্রিয়া সাহা মিথ্যাচার করেছেন: পূর্তমন্ত্রী | নবীগঞ্জে কলেজছাত্রীকে উত্যক্ত করার অভিযোগে যুবকের ৬ মাসের কারাদন্ড |
  • আজ ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

হোয়াইট হাউসে থাকবেন ইমরান খান!

১১:২৯ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ১১, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
pak

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাচ্ছেন ইমরান খান৷ এই সফরে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। শান্তি ও অর্থনৈতিক বৃদ্ধির ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র ও পাকিস্তানের সম্পর্ক আরও মজবুত করাই এই বৈঠকের মূল লক্ষ্য। ২২ জুলাই ওয়াশিংটন পৌঁছবেন ইমরান।

এই সফরে ইমরান খান ওয়াশিংটন ডিসির পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত আসাদ মজিদ খানের বাসভবনেই থাকবেন বলে জানা গিয়েছিল। বিদেশ সফরে দেশের খরচ কমানোই ছিল এর মূল উদ্দেশ্য। মার্কিন প্রেসিডেন্টসহ অন্যান্য মার্কিন কর্মকর্তাদের বৈঠকে যোগ দেবেন মজিদ খানের বাসভবন থেকেই।

কিন্তু এর আগে কোনো রাষ্ট্রপ্রধান মার্কিন সফরে এলে তার নিরাপত্তা সুনিশ্চিত ও নিশ্ছিদ্র করার দায়িত্ব থাকত মার্কিন গোয়েন্দা দফতরের ওপর। মার্কিন গোয়েন্দারাই আমেরিকায় সফররত রাষ্ট্রপ্রধানদের থাকা, যাতায়াত, বৈঠক- সমস্ত কিছুর দায়িত্ব নেন। কিন্তু ইমরানের এই সিদ্ধান্তে সেই চেনা ছবিটা অনেকটাই বদলে যাচ্ছিল।

ফলে পাক প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্ত কিছুটা হলেও অস্বস্তি বাড়িয়ে দিয়েছিল মার্কিন গোয়েন্দা দফতরের। শেষে এই সমস্যার সমাধানের পথ বাতলে দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইমরান আমেরিকায় পৌঁছালে হোয়াইট হাউসেই তার থাকার আয়োজন করলেন ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউস সূত্রের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, ২২ জুলাই পাক প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানানোর প্রস্তুতি ইতিমধ্যেই শুরু করেছে হোয়াইট হাউস। ট্রাম্প-ইমরান বৈঠকের দিকে নজর রয়েছে প্রতিবেশি দেশ ভারতেরও। এই বৈঠকে সন্ত্রাস মোকাবিলার ইস্যুতে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দেবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট- এমনটাই আশা ভারতের।