সংবাদ শিরোনাম
নরসিংদীতে প্রথমবারের মতো সর্বাধুনিক কার ওয়াশ ও সার্ভিসিং সেন্টার উদ্বোধন | রাজধানীতে ছিনতাইয়ের প্রস্তুতিকালে ‘ফইন্নি গ্রুপের’ ৬ সদস্য আটক | এবার চমেক চিকিৎসকদের জন্য ‘নোবেল’ চাইলেন মেয়র নাছির | তানোরে অবৈধ এসটিসি ব্যাংক সিলগালা | ফাঁড়িতে আসামির মৃত্যু: পুলিশ-এলাকাবাসীর সংঘর্ষে আহত ৩৩, পাঁচ পুলিশ প্রত্যাহার | লালমনিরহাটে সহকারী পরিচালকের বেত্রাঘাতে স্কুলছাত্রী অজ্ঞান | সাগরে মৎস আহরণে নিষেধাজ্ঞা, ফিশারিঘাট হারিয়েছে চিরাচরিত রুপ | ‘আবরার পানি খাইতে চাইলে পানি দেওয়া হয় নাই’ | নান্দাইলে নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগ রাখায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা | মাগরিবের আজানের ২০ মিনিটের মধ্যে ছাত্রীদের হলে ঢোকার নির্দেশ! |
  • আজ ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেয়ার ঘোষণা সৌদির

৩:২৪ অপরাহ্ণ | শনিবার, জুলাই ১৩, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- রোহিঙ্গা মুসলিমদের নাগরিকত্ব দিতে যাচ্ছে সৌদি আরব। দেশটিতে বসবাসরত রোহিঙ্গা মুসলিমদের নাগরিকত্ব দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ। দ্য ইসলামিক ইনফরমেশন ডটকম এমন খবর জানিয়েছে।

জানান যায়, সৌদি আরব সরকার রোহিঙ্গা অভিবাসীদের সরকারী পৃষ্ঠপোষকতায় কোনো ফি ছাড়াই বিনামূল্যে ইকামা সরবরাহ করবে। রোহিঙ্গা মুসলিমদের দেয়া ইকামায় তারা সৌদি আরবের নাগরিকদের মতোই চিকিৎসা ও আবাসন সুযোগ-সুবিধা পাবে।

এছাড়াও সৌদি আরব বিনামূল্যে রোহিঙ্গা মুসলিমদের শিক্ষার ব্যবস্থার উদ্যোগও গ্রহণ করছে বলে জানা যায়।

বাদশাহ সালমান আরো ঘোষণা করেন, মিয়ানমারের ১ মিলিয়ন (১০ লাখ) লোককে ইকামা প্রদান করবে। রোহিঙ্গা মুসলিমদের প্রতি বাদশা সালমানের সহযোগিতা ও সহমর্মিতার জন্য জাতিসংঘ আন্তরিক কৃতজ্ঞতাজ্ঞাপন করেন বলেও জানা যায়।

এখনও মিয়ানমারের রাখাইনে বৌদ্ধদের সঙ্গে রোহিঙ্গা মুসলিমদের দ্বন্দ্ব আরও অবনতির দিকে যাচ্ছে। ফিলিস্তিনের মতো মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে বৌদ্ধদের দ্বারা নির্যাতিত ও গণহত্যার শিকার হচ্ছে রোহিঙ্গা মুসলিমরা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিমদের নির্মম হত্যাসহ বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ, নারী নির্যাতনসহ বিভিন্ন অপরাধ কার্যক্রম ভাইরাল হয়ে যায়।

রাখাইনের বৌদ্ধ ও সেনাবাহিনীর অত্যাচার নির্যাতন থেকে জীবন বাঁচাতে শুধু গত ২ বছরে বাংলাদেশে প্রবেশে করেছে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা। বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্যাম্পে অবস্থান করছে এসব নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলিম।

গত ৭০ বছর যাবত অনেক রোহিঙ্গা মুসলিম সৌদি আরবে বসবাস করে আসছে। সৌদি আরবে বসবাসরত রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিনামূল্যে ইকামা প্রদান নিঃসন্দেহে একটি ভালো উদ্যোগ।