ঢাকায় মশা নিধনে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ

৫:৩৭ অপরাহ্ণ | রবিবার, জুলাই ১৪, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ঢাকা সিটিতে ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়াসহ অন্যান্য মশাবাহিত রোগ ছড়ানো বন্ধে এডিস মশা নির্মূল ও ধ্বংসে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ রোববার স্বতঃপ্রণোদিত রুলসহ এই আদেশ দেন।

একইসঙ্গে ঢাকা সিটি করপোরেশনের নাগরিকদের ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়াসহ এ ধরনের রোগে আক্রান্ত হওয়া বন্ধে এবং এডিস মশা রোধে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

এ ছাড়া এ ধরনের রোগ প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ (দায়ী) ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের দুই মেয়র, দুই প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, স্বাস্থ্যসচিব, এলজিআরডি সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে এক সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করীম, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল জায়েদী হাসান খান ও সায়েরা ফাইরুজ।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করীম সাংবাদিকদের বলেন, ‘ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত ও এডিস মশা নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আসা প্রতিবেদন আদালতের নজরে আনার পর আদালত রাজধানীতে ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়াসহ অন্যান্য মশাবাহিত রোগ ছড়ানো বন্ধে এডিস মশা নির্মূল ও ধ্বংসে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন।’ তিনি বলেন, ‘এছাড়া ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোদে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, আগামী ২২ জুলাইয়ের মধ্যে দুই সিটি করপোরেশনসহ সরকারের সংশ্লিষ্টদের জানাতে বলা হয়েছে। অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের মাধ্যমে পদক্ষেপের বিষয়ে জানাতে বলা হয়েছে।’

জানা যায়, ঢাকায় গত এক সপ্তাহে মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে এক হাজার ২৮ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় শতাধিক। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুম থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে। সেই সঙ্গে বিভিন্ন জেলা থেকেও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার খবর আসছে বলে জানিয়েছে কন্ট্রোল রুম। ডেঙ্গু প্রতিরোধে নগর কর্তৃপক্ষের আরো কার্যকর পদক্ষেপের দাবিতে মানববন্ধন করেছে নগরবাসী।

Loading...