সংবাদ শিরোনাম
গোলাপী বলের প্রথম ডে-নাইট টেস্টে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মমতা এবং অমিত শাহ | মির্জাপুরে অর্থের বিনিময়ে শিক্ষার্থীদের উত্তীর্ণ করার অভিযোগ! | কাউখালী শ্রীগুরু সংঘ কেন্দ্রীয় আশ্রমে আজ থেকে রাস উৎসব শুরু | আশুলিয়ায় `মাদক সম্রাট’ ইশতিয়াক দম্পতির সম্পদের পাহাড়, দুদকের দুই মামলা | কসবার ’ট্রেন দূর্ঘটনা’য় হবিগঞ্জের ৭ জন নিহত | ‘অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু আমাদের কারও কাম্য নয়’- অনন্ত জলিল | ‘এই আওয়ামী লীগ মুজিব-সোহরাওয়ার্দী-ভাসানীর আওয়ামী লীগ নয়’ | ‘ছাত্রলীগ সারাদেশেই হামলা চালাচ্ছে’- ভিপি নুর | ‘সরকারবিরোধী হলে ৩০ ডিসেম্বরের পরই রাস্তায় নামতাম’- ভিপি নুর | ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেন ‍দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শনে জামায়াতের নবনির্বাচিত আমীর |
  • আজ ২৯শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পুত্রবধূ ফেলে গেছে রাস্তায়, বৃদ্ধাকে দেখার নেই কেউ

৩:৫৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০১৯ ঢাকা, দেশের খবর

মো. সানোয়ার হোসেন, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি- কে এই বৃদ্ধা, পরিচয় জানেন না কেউ, মাঝে মাঝে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে শুয়ে থাকতে দেখা গেছে। প্রায় ৬০ বছর হওয়াতে একা চলতে পারেন না এমনটি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। বেশ কয়েকদিন ধরে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর বাইপাস এলাকায় আন্ডারপাসের নিচে পড়ে থাকতে দেখা গেছে।

বিভিন্ন মানুষকে প্রশ্ন করে জানা গেছে, প্রথমে মালেকা নামের এক মহিলা তাকে দেখাশোনা করতো। খোঁজ নিয়ে মালেকা বেগমকে পাওয়া গেলে তিনি বলেন, ৬ মাস পূর্বে উপজেলার বাড়ই খাল ব্রিজের কাছ থেকে ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে কয়েকমাস নিজের কাছে রেখে বৃদ্ধার দেখাশোনা করেছেন।

তবে বাড়ির মালিক ঝুকি মনে করায় বৃদ্ধার দেখাশোনার দায়িত্ব ছেড়ে দিতে হয় তাকে। তার কাছে থাকাকালিন তিনি বৃদ্ধার কাছ থেকে জেনেছেন তার পুত্রবধূ তাকে রাস্তায় ফেলে গেছে। তার একটি মাত্র ছেলে সে জীবিত নেই বলেও তার কাছ থেকে জানা গেছে বলে।

বর্তমানে তার ঠিকানা ঢাকা-টাঙ্গাইল মহসড়কের মির্জাপুর বাইপাস এলাকার আন্ডারপাসের নিচে। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকাল ৮ টায় সেই বৃদ্ধাকে খাইয়ে দিতে দেখা যায় সেখানে অবস্থান করা একজন পাগলকে। বৃদ্ধা বর্তমানে কোন কথা বলতে পারেন না, শারীরিক অবস্থাও খুব মুমূর্ষ।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবদুল মালেক’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন, এর আগে ওই বৃদ্ধাকে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করেছিলাম। হাসপাতালে কয়েক মাস চিকিৎসা করানো হয়েছে তাকে। তবে তার বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আমি অবগত নয় তবে খুব দ্রুত বৃদ্ধার বিষয়ে স্থায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Loading...