শেরপুরে স্কুল ছাত্রীকে জবাই করে হত্যার চেষ্টা ॥ থানায় মামলা

৭:০১ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০১৯ রাজশাহী

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, শেরপুর(বগুড়া)প্রতিনিধি: বগুড়ার শেরপুরের গুয়াগাছি গ্রামে এক স্কুল ছাত্রীকে জবাই করে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই সকালে ৩ জনকে আসামি করে ছাত্রীর পিতা বাদি হয়ে শেরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে শাকিল আহম্মেদ (১৬) নামের এক যুবককে আটক করেছে।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের গুয়াগাছি গ্রামের কামরুল ইসলামের মেয়ে জয়লা গুয়াগাছি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী। স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে পাশের জয়নগর গ্রামের মৃত মতিবর রহমানের ছেলে একই স্কুলের ১০ম শ্রেণির ছাত্র শাকিল আহম্মেদ প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করে আসছিল। প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হয়ে বিষয়টি উক্ত ছাত্রী স্কুলের শিক্ষকদের কাছে অভিযোগ দেয়। এর প্রেক্ষিতে শিক্ষকরা ওই ছাত্রকে শাসন করেন।

গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১ টার দিকে অজ্ঞাতনামা ব্যাক্তি ওই ছাত্রীর ঘরের সিঁধ কেঁটে প্রবেশ করে ঘুমন্ত অবস্থায় মুখ চেপে ধরে হত্যার উদ্দ্যেশে গলায় ছুরি দিয়ে আঘাত করে চলে যায়। চিৎকার শুনে পরিবারের লোকজন তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে । বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রির পিতা কামরুল ইসলাম গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বাদি হয়ে শাকিল আহম্মেদ, মোঃ জেমস ও মোঃ আইয়ুব আলীকে বিবাদী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে  ছাত্রীর বাবা কামরুল ইসলাম বলেন, আমার ধারনা আসামীদের কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তারা এধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবীর বলেন, ছাত্রীটিকে হত্যার চেস্টায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের জন্য শাকিল কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।