সংবাদ শিরোনাম
গ্রামবাসীর অর্থায়নে তৈরি হচ্ছে মৌলা নদীর উপর ‘স্বপ্নের জনতা’ ব্রীজ | নোবিপ্রবিতে শিক্ষক সমিতি নির্বাচনে লড়বে আওয়ামী পন্থী দুই দল | জাতীয় স্মৃতিসৌধ ১২-১৫ ডিসেম্বর সর্বসাধারণের প্রবেশ বন্ধ | বেনাপোল ইমিগ্রেশনের কার্যক্রম ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত করার নির্দেশ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের | টাঙ্গাইলে ফসলি জমির মাটি ইটভাটায় বিক্রি এলাকাবাসীর ক্ষোভ | কাপাসিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩, আহত ২ | শিশুকে ধর্ষণ করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে গেল ১৪ বছরের কিশোর! | বনানীতে বাসার পাশে মাটিতে পোঁতা চীনা নাগরিকের লাশ | যশোরের চৌগাছায় নববধূকে ধর্ষণ করল চা-দোকানি! | ‘জয় বাংলা’ শ্লোগান না থাকলে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন বাতিল হওয়া উচিত: কৃষিমন্ত্রী |
  • আজ ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শেষপর্যন্ত ভেঙেই গেল ভূঞাপুর-তারাকান্দি সড়ক

১২:২৮ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০১৯ ঢাকা, দেশের খবর

রবিউল ইসলাম, সময়ের কণ্ঠস্বর- উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ফুসে উঠেছে যমুনা নদী। অস্বাভাবিক হারে পানি বৃদ্ধি পেয়ে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরের তাড়াই বাঁধ ভাঙার পর এবার তীব্র স্রোতে ভেঙে গেল ভুঞাপুর-তারাকা‌ন্দি সড়‌ক।

বৃহস্প‌তিবার (১৮ জুলাই) রাত পৌনে ৮টার দিকে ভূঞাপুর উপ‌জেলার টে‌পিবা‌ড়ি এলাকার সড়কটির বেশ কিছু অংশ ভেঙে যায়। এতে হু হু করে পানি প্রবেশ করে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে গেছে।

এদিকে সড়কটি ভেঙে যাওয়ায় সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছে ওই সড়ক থেকে প্রতিদিন চলাচলকারী কয়েক হাজার মানুষ ও যানবাহন।

এর আগে বুধবার (১৭ জুলাই) রাতে পানির তোড়ে উপজেলার তাড়াই এলাকার বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় ভূঞাপুর-তারাকান্দি সড়কের বেশ কয়েকটি স্থান দিয়ে পানি লিকেজ হচ্ছিল। এসব লিকেজ বন্ধ করতে স্থানীয়রা দিনভর কাজ করলেও শেষ রক্ষা হয়নি।

রাতের আঁধারে সড়ক ভেঙে টেপিবাড়ি, পলিশা, বাহাদিপুর, মাইজবাড়ি, ঝনঝনিয়া, ফলদাসহ বিভিন্ন এলাকায় বন্যার পানি ঢুকে পড়েছে। এতে কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে এসব গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। বন্যাকবলিত মানুষজন, খাদ্য ও বাসস্থান সংকটে পড়েছে। এছাড়াও গবাদিপশু নিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন তারা।

এদিকে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে যমুনা নদীর পানি অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৯১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন টাঙ্গাইলের পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ভারী বর্ষণ এবং উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে যমুনাসহ সব নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। বন্যার পরিস্থিতি শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Loading...