অবশেষে সেই প্রতিবন্ধী অন্তঃসত্ত্বার স্থান হলো সরকারি আশ্রয় কেন্দ্রে

৮:০১ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০১৯ ঢাকা

মোল্লা তোফাজ্জল, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:, বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে টাঙ্গাইল থেকে সেই মানসিক প্রতিবন্ধী ৬ মাসের অন্তঃসত্বা তরুনীকে (২৫) গাজীপুরের সরকারি আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের আদেশের পর তাকে আশ্রয়কেন্দ্রে পাঠায় উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সমাজসেবা কার্যালয়ের টাঙ্গাইলের উপ-পরিচালক।

টাঙ্গাইল সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শাহালম বলেন, গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর বিষয়টি আমাদের নজরে আসে। পরে কালিহাতী উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলি। তিনি উপজেলার নারান্দিয়া থেকে বৃহস্পতিবার বিকালে মানসিক প্রতিবন্ধী ওই তরুনীকে তার তত্বাবধায়নে নেন। কালিহাতী থানায় সাধারণ ডায়েরী করার পর তাকে গাজীপুরের কাশিমপুরে সরকারি আশ্রয়কেন্দ্রে পাঠানোর জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট আবেদন করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অমিত দেবনাথ এর আদেশের মাধ্যমে তাকে গাজীপুরের সরকারি আশ্রয়কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার নারান্দিয়া বাসস্ট্যান্ডে বুধবার ওই তরুনীকে পাওয়া যায়। স্থানীয়রা তাকে নিয়ে নিকটস্থ স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রে যান। সেখানে দায়িত্বরত পরিদর্শিকা মর্জিনা বেগম প্রাথমিক পরীক্ষা শেষে বলেন, মানসিক প্রতিবন্ধী এই মেয়ে ৬ মাসের গর্ভবতী। সে শারীরিকভাবে অত্যন্ত দুর্বল এবং গায়ে জ¦র রয়েছে। তার সুচিকিৎসা প্রয়োজন। এভাবে পথে পথে ঘুরতে থাকলে সে মারাও যেতে পারে।

 মেয়েটি তার নাম-পরিচয়, গ্রাম-ঠিকানা কিছুই বলতে পারেনি। সে রাস্তায় কে বা কাদের দ্বারা ধর্ষিত হয়ে গর্ভবতী হয়েছে, নাকি গর্ভবতী হয়ে বাড়ি থেকে চলে এসেছে এবিষয়েও কিছু জানা যায়নি। স্থানীয়দের ধারণা মানসিক প্রতিবন্ধী হওয়ার সুযোগ নিয়ে মানুষ নামক কোন পশু বা পশুদের দ্বারা ধর্ষিত হয়েই সে গর্ভবতী হয়েছে।

টাঙ্গাইল জেলা মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আতাউর রহমান আজাদ বলেন, যদি মানসিক প্রতিবন্ধী ওই তরুনী ধর্ষিত হয়ে গর্ভবতী হয়ে থাকে, তবে অপরাধীদের খুঁজে বের অবশ্যই শাস্তি দিতে হবে। তা না হলে সমাজের এই ভয়াবহ ব্যাথি রোধ করা সম্ভব হবে না। ধর্ষনের ফলে মেয়েটির বাচ্চা হলে এর দায়ভার কে নেবেন কিংবা বাচ্চাটি কার পরিচয়ে বড় হবে?