অভিযোগ আমলে নিয়েছেন আদালত, সুমনের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ

৮:০৩ অপরাহ্ণ | সোমবার, জুলাই ২২, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার অভিযোগ আমলে নিয়ে ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (২২ জুলাই) সাইবার ট্রাইব্যুনাল (বাংলাদেশ), ঢাকার বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন এই আদেশ দেন।

আদেশে ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ তদন্ত করে আগামী ৩০ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন আকারে জমা দিতে ভাষানটেক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ঠিক করে দেন আদালত।

এদিন সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮ এর ২৫, ২৮ ও ২৯ ধারায় অভিযোগ এনে মামলার আবেদন করেন গৌতম কুমার এদবর। প্রথমে দণ্ডবিধির ২৯৫ (ক) ও ২৯৮ ধারায় অভিযোগ আনা হলেও পরবর্তীতে ধারা পরিবর্তন করেন বাদী।

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি নজরুল ইসলাম শামীম বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার আরজিতে জানানো হয়, গত ১৯ জুলাই ব্যারিস্টার সাইয়্যেদুল হক সুমন তাঁর ফেসবুক পেজে বলেন, পৃথিবীর মধ্যে নিকৃষ্ট এবং বর্বর জাতি হচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বী, যাদের ধর্মের কোনো ভিত্তি নেই। মনগড়া বানানো ধর্ম। হয়তো দু-একটি খবর নিউজে প্রকাশিত হয়। এ ছাড়া আরো অনেক ঘটনা ধামাচাপা পড়ে যায় তাদের নৃশংসতার আড়ালে।

আরজিতে আরো বলা হয়, ব্যারিস্টার সুমন গত ১৯ এপ্রিল সনাতন ধর্ম ও হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের নিয়ে মিথ্যা, অশ্লীল ও চরম আপত্তিকর মন্তব্য করেন। যার ফলে হিন্দুসমাজ তথা গোটা জাতির মধ্যে এ নিয়ে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। আসামির এ রকম আচরণ এবং সোশ্যাল মিডিয়ার অশ্লীল অবমাননাকর ও অরুচিপূর্ণ বক্তব্যর ফলে রাষ্ট্র ও হিন্দুসমাজের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয় এবং ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে। আসামির এ ধরনের উসকানিমূলক বক্তব্য প্রদানের ফলে সাধারণ জনগণ নীতিভ্রষ্ট, অসৎ হতে উদ্যত হওয়ার ফলে আইনশৃঙ্খলা বিঘ্ন হওয়ার আশঙ্কা আছে।

এ বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘কোনো ব্যক্তি সংক্ষুব্ধ হলে মামলা দায়ের করা তাঁর সাংবিধানিক অধিকার। ফেসবুকের যে অ্যাকাউন্ট থেকে এটি ছড়ানো হয়েছে, সেটা আমার নামে ভুয়া আইডি ছিল।’

ব্যারিস্টার সুমন আরো বলেন, ‘এ মামলার মাধ্যমে প্রমাণিত, হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা এ দেশে স্বাধীনভাবে বসবাস করছে এবং আদালতে তারা ন্যায়বিচার পাচ্ছে।’

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করায় বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করেন ব্যারিস্টার সুমন। গতকাল রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম জিয়াউর রহমানের আদালত তার করা মামলা খারিজ করে দেন।

Loading...