• আজ ২৩শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মহেশখালীতে তরুণীকে ধর্ষণ চেষ্টার মামলা প্রত্যাহারে হুমকি

৩:০৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, জুলাই ৩১, ২০১৯ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

তাহজীবুল আনাম, কক্সবাজার প্রতিনিধি- কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়নে সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

গত ২৫ জুলাই স্থানীয় বাসিন্দা জনৈক মোস্তাক মিয়ার পুত্র আবুল কাছিম (২৮) কতৃক যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ চেষ্টার শিকার হন ওই এলাকার মোঃ রিদুয়ানের কন্যা তাজেল মনি (১৩)। সে শাপলাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া শিক্ষার্থী।

জানা যায়, বখাটে যুবক আবুল কাছিম (২৮) প্রায় সময় তার সাঙ্গ পাঙ্গুদের সাথে নিয়ে শিক্ষার্থী তাজেল মনিকে স্কুলে যাওয়ার রাস্তা গতিরোধ করে শারীরিক নানা দৃষ্টি ভঙ্গির মাধ্যমে উক্তত্য ও নাজেহাল করে আসছে, এমনকি ধর্ষণ চেষ্টাও করা হয়।

এমতাবস্থায় সে কোন উপায়ন্তর না পেয়ে গত ২৭ জুলাই তিন জনকে প্রধান আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ধারা মতে মহেশখালী থানায় একটি মামলা রুজু করেন যার নং-২৪/২০০।

উক্ত মামলার আসামীগন- ১. আবুল কাছিম (২৮), পিতা-মোস্তাক মিয়া ২. মো: মোর্শেদ (৩০), পিতা-জালাল মিয়া, ৩. আব্দুর শুক্কুর (৪২), পিতা- মৃত জলিল বকসু।

মামলা রুজুর পর অভিযুক্ত আবুল কাছিম শাপলাপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান জসিম মাহমুদকে ব্যবহার করে রাজনৈতিক দলের প্রভাব কাটিয়ে মামলার বাদি ও স্বাক্ষীদের মামলা প্রত্যাহার করে নিতে নানা ধরনের হুমকি ধামকি দিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এমনকি মামলা প্রত্যাহার না করলে প্রাণে মারারও হুমকি দিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। এমতাবস্থায় মামলার বাদি ও স্বাক্ষীরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন এবং এ বিষয়ে তারা প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

মামলা তদন্তের দায়িত্বে থাকা মহেশখালী থানার সাব-ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ ইমাম হোসেন জানান, শাপলাপুরে তাজেল মনি নামে এক তরুণীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পেয়েছি। মামলার এজাহারও হয়ে গেছে। তবে বিষয়টি আমাদের আরো একটু তদন্ত করে দেখতে হবে।

এ ব্যাপারে জানতে ইউপি সদস্য জসিম মাহমুদের মুঠোফোনে একাধিকবার রিং করার পরও মোবাইল রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।