নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাচ্ছে ডেঙ্গু পরিস্থিতি, মশার ওষুধের জন্য অপেক্ষা আরো এক সপ্তাহ

১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১, ২০১৯ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে ডেঙ্গু। বর্তমানে হাসপাতালগুলোতে ভর্তি রোগীর বেশির ভাগই ডেঙ্গু আক্রান্ত। প্রতিদিনই নতুন নতুন রোগী ভর্তি হচ্ছেন। বেডে জায়গা না পেয়ে ফ্লোরে শুয়েও চিকিৎসা নিতে হচ্ছে রোগীদের। ফলে সরকারি-বেসরকারি সব হাসপাতালেই এখন উপচে পড়া ভিড়।

পরিস্থিতি ক্রমেই নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। এক এক করে দেশের ৬৪ জেলায়ই ডেঙ্গুর বিস্তার ঘটেছে। প্রথমে রাজধানীকেন্দ্রিক প্রকোপ দেখা যায়। এরপর ঢাকার আশপাশের জেলা ও সিটি করপোরেশনে ছড়ায়। গত সপ্তাহে বিভিন্ন বিভাগীয় শহর থেকে ডেঙ্গু আক্রান্তের খবর আসতে থাকে। ধাপে ধাপে তা ছড়িয়ে জেলা ও উপজেলা শহরে ছড়িয়ে পড়ে। এখন গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকেও আক্রান্তের দু-একটি খবর আসছে।

ইতিমধ্যে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৭ হাজার ছাড়িয়েছে। গতকাল নতুন করে ১ এক হাজার ৪৭৭ জন আক্রান্ত হয়েছে। গতকাল বুধবার পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫৩ জনের। তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে মৃতের সংখ্যা মাত্র ৮ জন।

এর মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ঘোষণায় নতুন করে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। গতকাল প্রতিষ্ঠানটির সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে একজন পরিচালক বলেছেন, এডিস মশার প্রজননস্থলগুলো ধ্বংসে সফলতা না এলে এই রোগের প্রকোপ আরও বাড়বে। অপরদিকে মশার প্রজননস্থল ধ্বংস করা যাদের দায়িত্ব সেই ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের কেনা মশা মারার ওষুধ কাজ করছে না। আবার নতুন করেও তারা ওষুধ কিনছে না। সর্বোচ্চ আদালত জানতে চেয়েছেন কবে তারা মশার কার্যকরী ওষুধ কিনবে।

আবারও ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ভূমিকাও প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে। এই ডেঙ্গু দুর্যোগের মধ্যে তিনি সপরিবারে মালয়েশিয়ায় গেছেন। এটা নিয়ে বেশ সমালোচনা হচ্ছে। অবশ্য গতকাল রাতেই ফেরেছেন তিনি। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকায় তিনি সংবাদ সম্মেলন করবেন বলে জানানো হয়েছে। একদিকে রোগের প্রকোপ বাড়ছে, অপরদিকে সংশ্নিষ্ট কর্মকর্তাদের চরম দায়িত্বহীনতায় নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

এদিকে মশা মারার কার্যকর ওষুধের জন্য আরো এক সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে। এই সময়ে ডেঙ্গু পরিস্থিতি কীভাবে সামলাবে জানে না ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। এ কয়দিনে ডেঙ্গুর ভয়াবহতা কোন পর্যায়ে গিয়ে দাঁড়াবে তা নিয়ে সর্বমহলে আলোচনা চলছে।

সিটি করপোরেশনের এক কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে বলেন, আল্লাহ আল্লাহ করেন, এবার কার্যকর ওষুধ আসছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে মশা মারার কার্যকর ওষুধ দেশে এসে পৌঁছাবে।

Loading...