• আজ ১১ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সুনীতা উইলিয়ামসের ইসলাম গ্রহণের দাবিটি মিথ্যা!

১০:৫৪ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১, ২০১৯ ফিচার
sunita

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার ভারতীয় বংশোদ্ভূত মহাকাশচারী সুনীতা উইলিয়াম ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন বলে দাবি করা হয় একটি ফেসবুক পেজ থেকে একটি ভিডিও শেয়ার করে। সম্প্রতি জানা গেছে এই ভিডিওতে যে দাবি করা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

ভিডিওতে বলা হয়েছে, ‘মহাকাশে যাওয়ার পথে সুনীতা উইলিয়াম যখন পৃথিবীপৃষ্ঠ থেকে ২৪০ মাইল ওপরে অবস্থান করছিলেন, তখন তিনি পৃথিবীতে দুটি তারা দেখতে পান।

এরপর টেলিস্কোপ নিয়ে যখন তিনি তা দেখেন, তখন দেখতে পান তার একটি মক্কায় অবস্থিত, আরেকটি মদিনায়। তখনই সুনীতা উইলিয়াম অভিভূত হয়ে ফিরে এসে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেন। এরপর তিনি তা বাস্তবায়নও করেন।’

কিন্তু এই ভিডিওতে যে দাবি করা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। তাঁর বাবা-মা উভয়ই হিন্দু বলে যে দাবি করা হয়েছে, তাও ঠিক নয়। কারণ তাঁর বাবা হিন্দু হলেও মা খ্রিস্টান। তিন বছর আগেও এধরণেরই একটি ভুয়া খবর ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল।

গুগলে ‘সুনীতা উইলিয়াম ইসলাম’ লিখে সার্চ করাতে ভারতের টাইমস গ্রুপের নবভারতটাইমস ডটকম -এর ‘সত্যখোঁজি’র একটি রিপোর্ট পাওয়া যায়। যা ২০১৬ সালে প্রকাশিত। সেখানেই প্রথম এই ভুয়া খবরের পর্দাফাঁস করা হয়।

এছাড়াও ২০১০ সালের ২৭ অক্টোবর ‘cnTraveller’-এ প্রকাশিত সুনীতা উইলিয়ামের একটি ইন্টারভিউ প্রকাশিত হয়। যাতে উঠে আসে এই ইসলাম গ্রহণ প্রসঙ্গ।

সেখানে সুনীতা বলেন, ‘আমি জানি না, কোথা থেকে এই ভিত্তিহীন খবর ছড়ানো হল। আমার বাবা হিন্দু। আমি ভগবান কৃষ্ণ, রাম ও সীতার কাহিনী শুনতে শুনতে বড় হয়েছে। আমার মা খ্রিস্টান, আমি যীশুকেও বুঝতে পারি।’

নাসার ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযায়ীও, সুনীতার বাবার নাম দীপক পান্ড ও মায়ের নাম বাণী পান্ড।

ভারতের এনডিটিভি-কে ২০১৬ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি দেওয়া ইন্টারভিউতে সুনীতা বলেন, তিনি ভগবান গনেশ-এর ওপর আস্থা রাখেন, সৌভাগ্যের প্রতীক বলে মানেন। মহাকাশে গীতা পড়ার কথাও তিনি জানান। ২০১৩ সালে ইন্ডিয়া টিভি-কে দেওয়া ইন্টারভিউতেও তিনি মহাকাশে গীতা ও উপনিষদ পড়ার বিষয়টি বলেন।

সুনীতা উইলিয়াম মক্কা-মদিনায় গিয়েছিলেন বলে ওই ভিডিওতে দাবি করা হলেও এবিষয়ে কোনও রিপোর্ট অথবা ভিডিও ফুটেজ পাওয়া যায়নি।

সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে, সুনীতা উইলিয়ামকে নিয়ে করা এই ভিডিওটির দাবি সম্পূর্ণ মিথ্যে।

আর ভিডিওটি মূলত, প্রোমোট করা হচ্ছে বাংলাদেশের উগ্র সাম্প্রদায়িক দল জামায়াতে ইসলামির এক সমর্থকের ফেসবুক পেজ থেকে। পেজটির নাম ‘এম রহমান’। মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত দেলোয়ার হোসাইন সাইদির নানা ভিডিও প্রমোট করা হচ্ছে ওই পেজটি থেকে।

সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে