‘পোস্ট মর্টেম’ এর বাংলা ‘ময়নাতদন্ত’ কেন জানেন?

১২:২২ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, আগস্ট ২, ২০১৯ জানা-অজানা
post

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে চিকিৎসক বা পুলিশের ভরসা পোস্টমর্টেম রিপোর্ট। মৃত্যুর কারণ যদি হয় অজানা এবং অস্বাভাবিক হয় তবে তা জানার প্রধান উপায় হচ্ছে মৃত ব্যক্তির মরদেহের ‘পোস্ট মর্টেম’ করা। ইংরেজি এই ‘পোস্ট মর্টেম’ শব্দের বাংলা প্রতিশব্দ হিসেবে ব্যবহার হরা হয় ‘ময়নাতদন্ত’।

কিন্তু কখনও ভেবে দেখেছেন পোস্ট মর্টেমের বাংলা নাম ময়না তদন্ত কেন? পোস্ট মর্টেমের সঙ্গে ময়না পাখির মিল কোথায়? আসুন জেনে নেয়া যাক আসল রহস্য –

ময়না পাখি দেখতে মিশমিশে কালো এবং তার ঠোঁট হলুদ। এই পাখি প্রায় তিন থেকে তেরো রকম ভাবে ডাকতে পারে। অন্ধকারে ময়না পাখিকে দেখা যায় না চোখে। অন্ধকারের কালোয় নিজের কালোকে লুকিয়ে রাখে এরা। শুধু মাত্র অভিজ্ঞ মানুষ তার ডাক শুনে বুঝতে পারেন, যে, এটা ময়না পাখি।

না দেখা ময়নাকে যেমন অন্ধকারে শুধু কণ্ঠস্বর শুনেই আবিষ্কার করা যায়, তেমনই পোস্টমর্টেমেও অন্ধকারে থাকা কারণকে সামান্য সূত্র দিয়ে আবিষ্কার করা হয়।

সামান্য সূত্র থেকে আবিষ্কার হয় বড় থেকে বড় রহস্যের সমাধান। পাওয়া যায় আসল অপরাধীদের। পাওয়া যায় মৃত্যুর কারণ। তাই পোস্ট মর্টেমের বাংলা হয়েছে – ময়না তদন্ত।

Loading...