সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সেলফি তুলতে গিয়ে নদীতে ডুবে মির্জাপুর পৌর ছাত্রদল নেতার মৃত্যু

১:০৭ অপরাহ্ণ | শনিবার, আগস্ট ৩, ২০১৯ ঢাকা, দেশের খবর

মো. সানোয়ার হোসেন, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি- টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌর ছাত্রদলের সহ-সম্পাদক মোঃ জাহিদ হাসান জিকু (২৭) বেড়াতে গিয়ে পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (০২ আগস্ট) বিকেলে কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ এলাকার হাওর অঞ্চলে এ ঘটনা ঘটে। জাহিদ হাসান মির্জাপুর উপজেলার পৌর সদরের পুষ্টকামুরী পূর্ব উত্তরপাড়া গ্রামের মোঃ ইয়াছিন মিয়ার ছেলে। জাহিদ ব্যাংক এশিয়া ময়মনসিংহ জেলায় কর্মরত ছিলেন।

পরিবার সুত্র জানায়, শুক্রবার (০২ আগষ্ট) জাহিদ ও তার ৫ জন বন্ধু মিলে কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে নৌকাযোগে বেড়াতে যায়। পরে সেখান থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরের একটি হাওরের মাঝখানে ছোট একটি ব্রিজে গিয়ে অবস্থান নেয় তারা। সাথে থাকা একটি রাস্তার পাশে হাটু পানিতে নেমে ৬ বন্ধু মিলে সেলফি তুলছিলো এমতাবস্থায় হঠাৎ দমকা ঢেউ আসলে তাদের মধ্য থেকে ৩জন পানিতে ডুবে যায়। এতে দুই বন্ধু কোনো মতে পানি থেকে উঠতে পারলেও জাহিদের হাত ধরে উদ্ধারের চেষ্টা করা হলেও পানির স্রোতে হাওরের তলদেশে চলে যায়। প্রায় ২ ঘন্টার মতো খোঁজাখুঁজির পর তাকে মৃত অবস্থায় পানি থেকে উদ্ধার করা হয়।

পরে উদ্ধার করে মির্জাপুর নিয়ে আসলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। শনিবার সকাল ৮টার সময় তার ১ম নামাজের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। বেলা ১১টার সময় ২য় ও শেষ জানাযা শেষে নিজ পৈতৃক বাড়ি কালিয়াকৈর উপজেলার পিপড়াছিট গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন কাজ সম্পন্ন হবে বলেও জানা গেছে।

এদিকে জাহিদ হাসান জিকুর অকাল মত্যুতে উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সাংসদ আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলামসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা তার পরিবারের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ ও সমবেদনা জানিয়েছেন।

অপরিদিকে ইঞ্জিন চালিত নৌকার ড্রাইভার নদীতে পড়ে নিখোঁজ হয়েছে। নিখোঁজ মোঃ শাহিনুর (৪০)। তার বাড়ি ঢাকার জেলার ধামরাই উপজেলার হাজিপুর গ্রামে। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার মীর দেওহাটা এলাকায় পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া লৌহজং নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, হাজিপুর গ্রামের বেশকয়েকজন লোকজন ইঞ্জিন চালিত নৌকাযোগে মির্জাপুরে ঘুরতে আসেন। বাড়ি ফেরার পথে উপজেলার মীর দেওহাটা এলাকায় পৌছালে ঐ স্থানে নৌকা দিয়ে নদী পারাপার ব্যবহুত রশির সাথে লেগে নদীতে পড়ে যায় শাহিনুর। পরে নদী থেকে আর উঠতে পারে না সে। খবর পেয়ে মির্জাপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ২ ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ চালায়। তবে অনেক খোজাঁখোজির পরও তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার আরিফুল ইসলাম বলেন, গতকাল রাত হয়ে যাওয়ার ফলে অন্ধকারে উদ্ধার কাজ বন্ধ রাখা হয়েছিলো। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ডুবুরি দলের সদস্যদের সহযোগিতায় উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত উদ্ধারকাজ অব্যাহত থাকবে।