সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মাদারীপুরে ডেঙ্গু আক্রান্ত গৃহবধূর মৃত্যু, মেয়ে হাসপাতালে

১:১৬ অপরাহ্ণ | শনিবার, আগস্ট ৩, ২০১৯ ঢাকা, দেশের খবর

ষ্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর- ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মাদারীপুরের কালকিনিতে নাদিরা বেগম (৩৯) নামের এক গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার ভোরে মাদারীপুর নেওয়ার পথে সে মারা যায়।

নিহত নাদিরা বেগম পৌর এলাকার উত্তর কৃষ্ণনগর গ্রামের আলমগীর মোড়লের স্ত্রী। তিনি গত তিনদিন পূর্বে কালকিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

এদিকে এ রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে নিহত গৃহবধূরর মেয়েসহ আরো চারজন রোগী ভর্তি রয়েছে। এছাড়া আজ পযন্ত মাদারীপুরে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে ৪ জনের মুত্যু হয়েছে।

ভূক্তভোগী পরিবার ও হাসপাতাল সুত্রে জানাগেছে, ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে গৃহবধু নাদিরা বেগমকে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। কিন্তু শনিবার ভোরে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে তাকে মাদারীপুর নিয়ে যাওয়ার পথে সে মারা যায়।

নিহত নাদিরা ও তার মেয়ে খাদিজা আক্তার চার দিন আগে ঢাকা থেকে ডেঙ্গু জ্বরের ভাইরাস নিয়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি হতে গিয়ে সিট না থাকায় ফিরে আসেন।

এছাড়া গত সোমবার ডেঙ্গুজ্বরে কালকিনি পৌর এলাকার ঠেঙ্গামাড়া গ্রামের বারেক বেপারীর বড় ছেলে জুলহাস বেপারী ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। বর্তমানে কালকিনি হাসপাতালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে খাদিজা ও বিথী আক্তারসহ ৪ জন ভর্তি আছে।

নিহত নাদিরা বেগমের মেয়ে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত রোগি খাদিজা আক্তার অভিযোগ করে বলেন, ডাক্তারের অবহেলায় আমার মায়ের মৃত্যু হয়েছে, তার কাছে রাতে চিকিৎসার জন্য গেলে তিনি আমার বোনের সঙ্গে বকাঝকা করেন। তারপরে আমার মাকে ঘুমের ঔষধ দেন, ঔষধ খাওয়ালে আমার মার মুখ থেকে ছেবরি বের হতে থাকে পরক্ষণে ডাক্তার বলেন তাকে মাদারীপুর নিয়ে যান।

তবে অভিযুক্ত ডাঃ রাকিজুম্মান বলেন, আমাদের কোন অবহেলা ছিল না।