সংবাদ শিরোনাম
আজমিরীগঞ্জে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান | সিজার ছাড়াই একসঙ্গে ৫ সন্তানের জন্ম দিলেন কুমিল্লার এক গৃহবধূ! | সাতার কেটে নদী পার হতে গিয়ে নিখোঁজ যুবকের মরদেহ উদ্ধার | জেএসসি, এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি: শিক্ষা মন্ত্রণালয় | পরিবেশমন্ত্রী শাহাব উদ্দিন করোনায় আক্রান্ত | বগুড়ায় স্বাক্ষর জালিয়াতির ঘটনায় ম্যানেজিং কমিটির ৭ সদস্যের সংবাদ সম্মেলন | অভিমান করে বের হয়ে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলেন তরুণী | ‘শয়তান আমাকে বাঁচতে দিলনা’ লিখে আত্মহত্যা করলো কলেজছাত্র | তেজগাঁও কলেজের নাম ভাঙিয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে অভিনব ‘প্রতারণা’ | ‘আমি কোনো দুর্নীতি করিনি’- সাবেক স্বাস্থ্য ডিজি |
  • আজ ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ডেঙ্গু দমনে কলকাতার মেয়রের সঙ্গে মন্ত্রী তাজুল ইসলামের বৈঠক

১২:৪৪ অপরাহ্ণ | রবিবার, আগস্ট ৪, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- সরকারের একাধিক পদক্ষেপের পরও ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গুর প্রকোপ কমছে না। অথচ পাশর্^বর্তী রাজ্য পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা পৌরসভা ডেঙ্গুমুক্ত করতে অনেকটাই সফল হয়েছে। এ অবস্থায় ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে কলকাতা মিউনিসিপাল করপোরেশনের মেয়র এবং পশ্চিমবঙ্গের নগর উন্নযন বিষয়ক মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

গতকাল শনিবার দুপুরে কলকাতা পৌরসভায় অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন করপোরেশনের ডেপুটি মেয়র এবং মেয়র পরিষদ (স্বাস্থ্য) অতীন ঘোষ, বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ অন্যরা। কলকাতা পৌরসভা ডেঙ্গু মোকাবিলায় কী কী পদক্ষেপ নিয়েছে, তা নিয়ে সবিস্তারে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের সামনে তুলে ধরে। বৈঠকে ফিরহাদ হাকিম ও অতীন ঘোষ উভয়েই বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলকে প্রথমেই মশার উৎসকে (জমা পানি, ভূগর্ভস্থ নালা পরিষ্কার) নষ্ট করার পরামর্শ দেন।

বৈঠক শেষে তাজুল ইসলাম বলেন, ‘কলকাতায় একটা সময় ডেঙ্গুর খুব প্রাদুর্ভাব ছিল। কীভাবে তারা সেটাকে মোকাবিলা করেছে, সে ব্যাপারে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী হিসেবে আমি এবং আমার প্রতিমন্ত্রী ও সচিব আলোচনা করেছি।’

কলকাতা পৌরসভার অন্তর্গত এলাকায় যেভাবে সম্পূর্ণ ডেঙ্গুমুক্ত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে, সে পরিকল্পনা বাংলাদেশ অবিলম্বে বাস্তবায়ন করতে পারবে বলেও জানান তাজুল ইসলাম।

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমরা বন্ধুপ্রতিম দেশ এবং পরস্পরের সমস্যাগুলো নিজের সমস্যা হিসেবে মনে করি। সে কারণে আমরা কলকাতার মেয়র ও ডেপুটি মেয়রের সঙ্গে বৈঠক করলাম। এই বৈঠক আমাদের সম্পর্ককে বৃদ্ধি করেছে।’

কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘বাংলাদেশ আমাদের বন্ধু দেশ, এর সঙ্গে আমাদের আত্মীয়তার সম্পর্ক। সে দেশে আমরা যদি কিছু মত ও জ্ঞান বিনিময় করতে পারি, তবে আমরা নিজেদের ধন্য মনে করব।’

এদিকে বাংলাদেশের ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণের নানা বিষয় নিয়ে আগামী সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলবেন কলকাতার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষের সঙ্গে। সেখানেই অতীন ঘোষ কলকাতায় কীভাবে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে আর কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে ইত্যাদি বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলবেন। এই ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলবেন কলকাতার ডেঙ্গু বিশেষজ্ঞরাও। কলকাতার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ এখন ডেঙ্গু বিশেষজ্ঞ হিসেবে পরিচিত।

Skip to toolbar