ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে বিশেষ ব্যবস্থায় আসছে ভারতীয় গরু

১১:৫৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ৮, ২০১৯ রাজশাহী
goru

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে বিশেষ ব্যবস্থায় ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে ভারতীয় গুরু আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ফলে এবার কোরবানির পশু বিক্রিতে লোকসানের আশঙ্কা করছেন স্থানীয় খামারিরা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার আবদুল খালেক নামের এক ব্যক্তিসহ মহেশপুর উপজেলার পলিয়ানপুর গ্রামের আনছার আলীর ছেলে অমেদুল হক, কালাচাঁদ মন্ডলের ছেলে ফজলুর রহমান, রায়পুর গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে রফিক বিশেষ ব্যবস্থায় এসব ভারতীয় গরু আনার উদ্যোগ নিয়েছে।

বিজিবি ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গরু আনার জন্য মহেশপুর উপজেলার পলিয়ানপুর সীমান্তে খাটাল তৈরিসহ সকল ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। যে কোন সময় তারা ভারত থেকে গরু আনা শুরু করতে পারে। তবে যদি এমনটি হয় তাহলে ওই সীমান্ত দিয়ে মাদক ও বিস্ফোরক চোরাচালান বৃদ্ধি পাবে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয় সচেতন মহল। একইসঙ্গে সীমান্ত অশান্ত হওয়ায় বর্ডার কিলিংও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন তারা।

আবদুল খালেক জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করার প্রেক্ষিতে তিনি ভারতীয় গরু আনার একটি বিশেষ অনুমতি পেয়েছেন। এর সত্যতা নিশ্চিত করেন ৫৮ বিজিবি ব্যাটালিয়ানের অধিনায়ক লে. কর্নেল কামরুল আহসান।

ঝিনাইদহ-৩ আসনের (মহেশপুর-কোটচাঁদপুর) সাংসদ অ্যাডভোকেট শফিকুল আজম খান চঞ্চল বলেন, বিষয়টি তার জানা নেই। তবে যদি এমন কিছু হয় তাহলে স্থানীয় খামারিরা এবারের কোরবানির পশু বিক্রিতে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। এছাড়া এ সীমান্ত বর্তমানে বিজিবির নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। কিন্তু বিশেষ ব্যবস্থায় গরু আনা শুরু হলে মাদক চোরাচালান বৃদ্ধিসহ বর্ডার কিলিং বৃদ্ধি পাবে এবং সীমান্ত অশান্ত হয়ে পড়বে।