সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

২ বছর ভারতের জেলখানায় সাজা ভোগের পর দেশে ফিরলো ৭ নারী শিশু

৫:০৬ অপরাহ্ণ | বুধবার, আগস্ট ১৪, ২০১৯ খুলনা
Benapole photo

মহসিন মিলন, বেনাপোল  প্রতিনিধি: ভাল কাজের প্রলোভন দেখিয়ে ভারতে পাচার করা ৭ বাংলাদেশি নারী শিশুকে আজ বুধবার সকালে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশে হস্থান্তর করেছে ভারতীয় পুলিশ।

ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ ও বিএসএফ সদস্যরা তাদেরকে যৌথভাবে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের হাতে তুলে দেন। রাইটস যশোর নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদেরকে পরিবারের কাছে পৌঁছে দিতে নিজেদের জিম্মায় নিয়েছেন।

ফেরত আসা বাংলাদেশিরা হলেন- ঢাকার রুপা চৌধুরী (৩১), রাবেয়া খাতুন (৩২) ও লাবনী আক্তার (১৮), যশোরের নারগিস আক্তার (১৫), নড়াইলের  শিলা খাতুন(১৫), বাগেরহাটের সাগর মোল্লা (১২) ও চাঁপাইনবানগঞ্জের শফিকুল ইসলাম (১৩)।

পাচারের শিকার রুপা চৌধুরী ও রাবেয়া খাতুন জানান, ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে দালালরা তাদের ভারতে নিয়ে যায় অর্থের বিনিময়ে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় দালালরা। পরে কোলকাতা পুলিশ তাদের আটক করে নিয়ে যায় সেট্রাল জেলে। সেখানকার  আদালত তাদের ২ বছরের সাজা প্রদান করে জেল হাজতে প্রেরন করে। সাজার মেয়াদ শেষে  সেখান থেকে নিলুয়া হোম নামে একটি এনজিও সংস্থা তাকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয় কেন্দ্রে রাখে। পরে দুদেশের স্বরাস্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আজ তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা  হয়।

এনজিও সংস্থা মানবাধিকার সংগঠন রাইটস যশোরের  তথ্য ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা তৌফিকুজ্জামান জানান, দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে তাদেরকে স্বদেশ প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় দেশে ফেরত আনা হয়েছে। এরা যদি পাচারকারীদের শনাক্ত করে মামলা করতে চান তাহলে তাদের আইনি সহায়তা দেয়া হবে।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মাসুম বিল্লাহ জানান, কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদেরকে পোর্টথানা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।