সংবাদ শিরোনাম
পীরগাছায় সড়কে হেলে পড়েছে একাধিক বৈদ্যুতিক খুঁটি, দেখার কেউ নেই | অশান্ত দিল্লিতে কারফিউ: সহিংসতায় নিহত বেড়ে ১৯, আহত ১৫০ | অবৈধ সম্পদ: স্ত্রীসহ ওসির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা | বঙ্গবন্ধুর চিঠি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে চান স্বীকৃতি বঞ্চিত মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী | শরীয়তপুরে যানবাহনের ড্রাইভার-হেলপারদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে পুলিশ | স্পেনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করলো আওয়ামী লীগ | রংপুরে ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি গ্রেফতার | ট্রাম্পের সফরের মধ্যেই মুসলিম নির্যাতনে মেতে ওঠেছে হিন্দুত্ববাদীরা | জ্বলছে দিল্লি, দেখামাত্র গুলির নির্দেশ | ফেনীতে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন একই পরিবারের ৫ জন |
  • আজ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলে ঐতিহ্য ‘ভাইয়াফি’ কুস্তি খেলা

৯:৩২ অপরাহ্ণ | শনিবার, আগস্ট ১৭, ২০১৯ সিলেট
sunamganj-pic

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলের মানুষজন বর্ষা মৌসুমে অবসর সময় কাটায়। এসময় জেলায় বিভিন্ন খেলার মধ্যে ভাটি বাংলার ঐতিহ্য ভাইয়াফি কুস্তি খেলা অন্যতম।

বিভিন্ন স্থানে কুস্তি খেলাটি এখনও বেশ জনপ্রিয়। লোকজন খেলাটি বেশ উপভোগ করার জন্য অপেক্ষায় থাকেন । বৈশাখ মাসে গোয়ালে ধান তোলার পরই তারা যার যার সাধ্যমতো আনন্দ উৎসব পালন করে।

সুনামগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার গৌরারং ইউনিয়নে গৌরারং বনাম বর্মা উত্তর-বানীপুর এর মধ্যকার একটি কুস্তি খেলা শনিবার দুপুরে অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় বর্মাউত্তর-বানীপুর বিজয়ী হয় । সুনামগঞ্জ জেলায় বিভিন্ন স্থানে কুস্তি খেলাটি এখনও বেশ জনপ্রিয়।

এ সম্পর্কে গৌরারং ইউনিয়নের ইসলাম উদ্দিন জানান,আমরা ছোট বেলা থেকেই এই খেলা উপভোগ করে আসছি। ইতি পুর্বে আমাদের জগাইরগোঁও ও বড়ঘাট মিলে টিম দিতে দেখতাম। আমাদের এলাকায় খেলাটি খুবই জনপ্রিয়। তিনি আরো জানান,খেলাটি  ৩টি স্তরে হয়ে থাকে প্রথমে উম্মুক্ত খেলা, দ্বিতীয় ছানী দাগা, ৩য় পর্যায়ে দাগা খেলা অনুষ্ঠিত হয়। আর যেসব খেলোয়ার খেলায় অংশ গ্রহন করেন তাদেরকে ‘মাল’ বলে ডাকা হয়। খেলার বিচারকদেরকে ‘আমিন’ নামে ডাকা হয়। খেলা শুরু হওয়ার পর দর্শকরা খেলোয়ারদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য ‘ইল্লালাহ’ বলে শোরগুল করতে থাকেন।

সাজিদুর রহমান জানান,এই কুস্তি খেলায় সাধারণত একে অন্যের মধ্যে সোহর্দ্য সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য করে থাকে। এক এলাকার মানুষ তাদের পছন্দ মতো অন্য এলাকার মানুষদেরকে খেলার একদিন পুর্বে দাওয়াত দিয়ে গরু জবাই করে থাকে। পুরো গ্রাম জুড়েই তখন উৎসব মুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়।

Loading...