• আজ ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

রান্নার ভুলই ডেকে আনে অসুখ, সঠিক নিয়মে রান্নায় কমবে বিপদ

১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, আগস্ট ৩১, ২০১৯ লাইফস্টাইল
bangla_food_

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক: রান্নার পদ্ধতিগত কিছু ভুলের জন্যই অনেক অসুখ ডেকে আনি আমরা। শুধু ডায়েট মেনে চলাই নয়, অসুখ এড়াতে বাদ দিতে হয় সে সব ভুলও। এক বার রান্নার পর সেই পোড়া তেল আর ব্যবহার করা যায় কি না তা নিয়েও নানা নিয়ম কানুন আছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে— তেলের ধরন, কত তাপমাত্রায় ভাজাভুজি হয়েছে, কত ক্ষণ ধরে গরম হয়েছে, আদৌ ডিপ ফ্রাই হয়েছে নাকি উপর উপর হালকা ফ্রাই এই সব কিছুর উপরেও নির্ভর করে পোড়া তেলের পুনর্ব্যবহারের বিষয়টি। তবে তেল ঘোলা হলে জৈব উপাদানগুলি নষ্ট হয়েছে বুঝতে হবে। সেই তেল আর ব্যবহার করা উচিত নয়।

শুধু তেলের বিষয়টিই নয়, রান্নার কিছু ভুলভ্রান্তি নিয়েও সাবধান হতে হবে। সুস্থ থাকতে তাই রান্না করার পদ্ধতিতেও তাই আনতে হবে কিছু বদল। কোন কোন নিয়ম মানতে হবে রান্নার ক্ষেত্রে জেনে নিন।

রান্নার নিয়ম: সেদ্ধ, স্বাস্থ্যকর হলেও স্রেফ সেদ্ধ খাবার দিনের পর দিন মুখে রুচবে না, সেটা যেমন সত্যি,  আবার ভুল পদ্ধতিতে সেদ্ধ করলে পুষ্টি মাঠে মারা যাবে, সেটাও সত্যি৷

ধরুন, খরচ ও সময় বাঁচানোর জন্য শাক–সব্জি–মাংস কুকারে সেদ্ধ করে তার পর কষানোর প্ল্যান করেছেন, ভাল কথা৷ কম সময় নিয়ে ঢেকে রান্না করলে খাবারের পুষ্টি বজায় থাকে৷ কিন্তু সমস্যা হল, কষানোর সময় যদি সেই জল ফেলে দেন, ভিটামিন বি, ভিটামিন সি ও উপকারি খনিজ পদার্থের প্রায় ৬০–৭০ শতাংশ জলের সঙ্গে বেরিয়ে যাবে৷ ভাতের ক্ষেত্রেও একই কথা সত্যি৷ ফ্যান ফেলে দিলে অনেক পুষ্টিও তার সঙ্গে জলে যায়৷ অতএব, সেদ্ধ করার সময় এমন জল দিন যা শোষিত হয়ে যায়৷ সব্জি বা মাংসের বেলায় ওই জল গ্রেভিতে ব্যবহার করুন৷

কত ক্ষণ রান্না করছেন তার উপরও পুষ্টির হ্রাস-বৃদ্ধি নির্ভর করে৷ কাজেই জল ফুটতে শুরু করার পর তাতে চাল, ডাল, সব্জি দিন৷ রান্না করুন কম আঁচে, ঢেকে বা কুকারে৷

ভাপে রান্না, ভাপে রান্না করলে পুষ্টির প্রায় সবটুকু বজায় থাকে৷ স্বাদও ভাল হয়৷ কখনও আবার ভাপানোর পর স্বাদ বাড়াতে ঢাকা দিয়ে হালকা করে কষিয়ে নেওয়া যেতে পারে৷

ভাপানো টম্যাটো, গাজরের পুষ্টিগুণ বেশি৷ ভাপানো ব্রকোলিতে থাকে গ্লুকোসিনোলেটস যা শরীরে গিয়ে আইসোথায়োসেনটে পরিণত হয়, যা ক্যানসার কোষের গতি মন্থর করতে পারে৷

পোচ, ডিমের মতো মাছও পোচ করা যায়৷ গরম কড়াইতে অল্প জল দিয়ে ঢ়াকা দিয়ে রান্না করলে ও পরে অল্প নুন, মরিচ, লেবু দিলে স্বাদ ও পুষ্টি থাকে অঢেল৷ ফল ও নরম শাকসব্জিও এ ভাবে খাওয়া যেতে পারে৷

Loading...