সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পাবনায় ইছামতী নদীর উৎস মুখে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

১০:০৩ অপরাহ্ণ | সোমবার, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৯ রাজশাহী
PABNA

পাবনা প্রতিনিধি: দ্বিতীয়দিনের মতো পাবনার ইছামতি নদীর উৎস মুখে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চালিয়েছে প্রশাসন। সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার চরশিবরামপুর এলাকায় এ অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড যৌথ অভিযান চালিয়ে ইছামতি নদীর মুখে স্থাপিত অবৈধ ইটভাটা ও পাকা ভবন, স্থাপনা উচ্ছেদ করে।

অভিযানের সময় পাবনা জেলা প্রশাসক জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শহীদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী সারাদেশে সকল নদী সচল করার চলমান উদ্যোগের অংশ হিসেবে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চলছে। পাবনাতেও ইছামতি নদী উদ্ধারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে তার ব্যতিক্রম ঘটবে না। আপাতত নদীর উৎস মুখে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারী সকল স্থাপনা অপসারণ করা হচ্ছে। ধারাবাহিকভাবে নদী দুপাড়ের অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে।

উচ্ছেদ অভিযান শুরুর পর অবৈধ দখলদারদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়। অনেকেরই নিজ নিজ অবৈধ স্থাপনা নিজেদেরই ভেঙে নিয়ে যেতে দেখা গেছে। এ সময় ইট ভাটা, নদীতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারী রাস্তা, বাঁধ ও দালান এক্সকেভটরের সাহায্যে গুড়িয়ে দেয় প্রশাসন।

অভিযানের সময় দখলদাররা অভিযোগ করেন, প্রশাসন আগে কোনো নোটিশ না দিয়ে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে। কোনো জিনিসপত্র সরানোর সময় দেয়নি।

এর আগে রোববার (০১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে প্রথমদিনের মতো অভিযান চালিয়ে নদীর পাড়ে একটি তিনতলা ভবন গুড়িয়ে দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, পাবনা শহরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজড়িত ইছামতি নদী দখল দূষণে পরিণত হয়েছে ভাগাড়ে। ৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ নদীটির অধিকাংশ জায়গা এখন প্রভাবশালীদের দখলে। দীর্ঘদিন ধরে এ জেলার মানুষ নদীটি দখলমুক্ত করে খননের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছে।