• আজ ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

যোগাযোগ না হলে আজই বিক্রমকে হারাবে ইসরো

৮:০৯ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
vikram-lander

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  প্রত্যাশা বাড়ছিল, হয়ত হারিয়ে যাওয়া ভারতের বিক্রমকে খুঁজে দেবে নাসা৷ এখনও সেই স্বপ্ন সফল হয়নি৷ তবে চাঁদের মাটিতে যেখানে চন্দ্রায়ন ২-এর ল্যাণ্ডার বিক্রমের অবতরণের কথা ছিল, সেই এলাকার ছবি তুলে নিয়ে এল নাসার মহাকাশযান৷

গত বৃহস্পতিবার নাসার এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা জানিয়েছেন চন্দ্রপৃষ্ঠের যে ছবি তোলা হয়েছে, সেখানেই সফট ল্যাণ্ডিং সফল হলে নামত বিক্রম ল্যাণ্ডার৷ নাসার লুনার রিকনাসান্স অরবিটার বা এলআরও মহাকাশযান এই দুটি ছবি তোলে৷ ১৭ই সেপ্টেম্বর ছবি দুটি তোলা হয়৷

যে সময় ছবি দুটি তোলা হয়, তখন চাঁদের ওই পৃষ্ঠে ঘন অন্ধকার৷ ফলে বিক্রম ঠিক কোথায় রয়েছে, তার হদিশ সঠিকভাবে মেলেনি৷ এলআরও মিশনের ডেপুটি প্রজেক্ট সায়েন্টিস্ট জন কেলার পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এই তথ্যই দেন৷

তবে ওই অরবিটার যে ছবিদুটি পাঠিয়েছে, তা খুঁটিয়ে দেখার কাজ চলছে৷ ২১শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে নাসা জানিয়েছে৷ কারণ তারপরেই ওই এলাকা ঘন অন্ধকারে চলে যাবে৷ তখন আর কোনওভাবেই বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ সম্ভব নয়৷

নাসার এলআরও টিম জানাচ্ছে, আগের ছবিগুলির সঙ্গে নতুন ছবিগুলির তুলনা করে দেখা হচ্ছে৷ তবে বিজ্ঞানীদের আশা ওই ছায়াঘেরা জায়গাতেই কোথাও রয়েছে বিক্রম৷ নয়তো যেখানে বিক্রম নেমেছে, সেই এলাকার ছবি তোলেনি নাসার অরবিটার৷

আজ ২১শে সেপ্টেম্বরের পর ফের ছবি তোলার চেষ্টা করা হবে ১৪ই অক্টোবরের পরে৷ কারণ তখন ওই এলাকা আলোকিত হবে ও স্পষ্ট ছবি পাওয়া যাবে বলে মনে করছে নাসা৷ এদিকে ইসরো জানাচ্ছে, অবতরণের পর ১৪ দিনের মধ্যে বিক্রম ও রোভার প্রজ্ঞানের কার্যক্ষমতা থাকবে, সেক্ষেত্রে বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ করার আশা প্রায় ক্ষীণ৷

ইসরোর পক্ষ থেকে খবর, লুনার নাইটস চলাকালীন চাঁদের দক্ষিণ মেরুর তাপমাত্রা মাইনাস ২০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকে৷ সেই পরিস্থিতিতে কাজ করার মত সক্ষম নয় বিক্রম৷ ফলে ২১শে সেপ্টেম্বরের পর ১৪ দিনের জন্য লুনার নাইটস শুরু হলে বিক্রমের কোনও যন্ত্রই আর কাজ করবে না৷ স্থায়ী ক্ষতির আশঙ্কা থেকে যাচ্ছে৷ তাই একদিনের মধ্যে যোগাযোগ করা না গেলে বিক্রমকে চিরতরে হারাতে চলেছে ভারত৷

ল্যান্ডার বিক্রমকে ইতিমধ্যেই ‘হ্যালো’ মেসেজ পাঠিয়েছে নাসা৷ নাসা-র জেট প্রোপালসন ল্যাবরেটরি রেডিয়ো ফ্রিকুয়েন্সির মাধ্যমে বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগে চেষ্টা চালাচ্ছে৷ ডিপ স্পেস নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হচ্ছে৷ ইসরো-র সঙ্গে চুক্তিভিত্তিক ভাবেই এই চেষ্টা করছে নাসা৷