‘ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জড়ালে সৌদি আরব ও আমিরাত ধ্বংস হয়ে যাবে’

১১:০৭ অপরাহ্ণ | শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
HIZ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ইয়েমেনের সেনাবাহিনী সৌদি আরবের দু’টি তেল স্থাপনায় হামলা চালানোর পর তার সমালোচনা করে পশ্চিমা দেশগুলো যেসব বক্তব্য দিয়েছে সেসবরে তীব্র নিন্দা জানিয়েছে লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ।

শুক্রবার রাতে টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে তিনি বলেন, যারা ইয়েমেনের নিরপরাধ মানুষ হত্যার ব্যাপরে নীরব থাকে তেল স্থাপনায় হামলার ব্যাপারে তাদের সরব হয়ে ওঠায় বোঝা যায়, তাদের কাছে রক্তের চেয়ে তেলের মূল্য অনেক বেশি।

তিনি সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ইরান বিরোধী যুদ্ধের পাঁয়তারার বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

রিয়াদ ও আবুধাবিকে উদ্দেশ করে সাইয়্যেদ নাসরুল্লাহ বলেন, “ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে গেলে তোমরা ধ্বংস হয়ে যাবে।” তিনি আরো বলেন, “হুথিদের একটি হামলায় সৌদি তেল স্থাপনার যে বিশাল ক্ষতি হয়েছে তা থেকে একথা অনুমান করা যায় যে, ইরান হামলা শুরু করলে পরিস্থিতি কতো ভয়াবহ আকার ধারণ করবে।”

হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, দুর্ভিক্ষে আক্রান্ত ইয়েমেনের যেসব নারী ও শিশু সৌদি আগ্রাসনে নিহত হয়েছে আমরা তাদের প্রতি সংহতি প্রকাশ করছি। তিনি বলেন, যারা আজ সৌদি তেল স্থাপনায় হামলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ঝড় তুলেছে তারা ইয়েমেনের নারী ও শিশু হত্যার সময় কেন নীরব থাকে তা বিশ্ববাসী জানতে চায়।

সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ তার ভাষণের অন্যত্র বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু নির্বাচনে জয়লাভের জন্য মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধিসহ সব ধরনের ষড়যন্ত্র ও কুচক্রি পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেছেন।

কিন্তু তা সত্ত্বেও নির্বাচনে তার পরাজয় হয়েছে। হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, অবশ্য ইসরাইলের নির্বাচনে কে বিজয়ী হয় তা ফিলিস্তিনের জন্য মোটেই গুরুত্বপূর্ণ নয়; কারণ, দখলদার ইসরাইলের ক্ষমতায় যেই আসুক ফিলিস্তিনি জনগণের ব্যাপারে তার নীতিতে পরিবর্তন আসবে না।

Loading...