সংবাদ শিরোনাম
গাজীপুরে দীর্ঘ সময় মর্গে লাশ ফেলে রাখার অভিযোগে হামলা এবং ভাংচুর, আটক-৩ | দুর্দান্ত খেলেও ভারতকে হারাতে পারলো না বাংলাদেশ | বুয়েটে বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ব্যানার থেকে মুছে ফেলা হলো ছাত্রলীগের নাম | ভারতের বিপক্ষে ১-০ গোলে এগিয়ে বাংলাদেশ | ‘বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যাকারীদের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত’- কাদের | বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির সাবেক ৭ এমডিসহ ২৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা | সাভার থেকে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদের এক সদস্য আটক | পাবনায় ছেলের পাথরের আঘাতে বাবার মৃত্যু | বশেমুরবিপ্রবি’র প্রভোষ্ট ও বিভিন্ন অনুষদের চেয়ারম্যানসহ ৭ জনের পদত্যাগ | অবৈধ স্থাপনা সরাতে সাবেক সাংসদ উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ৪ জনকে নোটিশ |
  • আজ ১লা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মাদারীপুরে স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা: মহিলাসহ আহত ৫

১২:৪২ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯ ঢাকা
Madaripur

স্টাফ রিপোর্টার- মাদারীপুর: মাদারীপুর সদর উপজেলার মোস্তফাপুর ইউনিয়নের পর্বতবাগান এলাকায় বুধবার সকাল ১১টায় শ্যাম চন্দ্র দাস (৪০) নামের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতি পক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় মহিলাসহ আহত হয়েছে আরো ৫ জন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকালে মোস্তফাপুর ইউনিয়নের পর্বতবাগান এলাকায় পুকুরের মাছ ধরা নিয়ে দিলীপ বালার সাথে একই এলাকার শ্যাম দাসের কথা কাটাকাটি হয়। এই ঘটনার জের ধরে দিলীপ বালা দেশীয় অস্ত্র শস্ত্রসহ লোকজন নিয়ে হামলা চালিয়ে শ্যাম চন্দ্র দাস, তার ভাই তারোক দাস (৪৫ ) ও চাচাতো ভাই পরিমল দাস ( ২৬ ) কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

সেখানে অবস্থার অবনতি হলে শ্যাম দাশসহ তাদের ভাইদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। ফরিদপুর হাসপাতালে নেয়ার পথে শ্যাম দাস মারা যায়। পরে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে দিলীপ বালার গ্রুপের ২ জন আহত হয়। এরা হলেন অশোক বালা (৭০), সন্ধ্যা বালা (৩০)। অশোক ও সন্ধ্যা বালা সদর হাসপাতালে ভর্তি আছে। নিহত শ্যাম দাস মস্তফাপুর বাজারে স্বর্ণের ব্যবসা করতেন।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ডাক্তার মো. এমরানুর রহমান সনেট বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় গুরুতর আহত শ্যাম দাসসহ তিনজনকে স্থানীয় লোকজন সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। আমরা প্রথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের তিনজনকেই উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করি। ফরিদপুর নেয়ার পথে শ্যাম দাস মারা গেলে তাকে পুনরায় সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে আমরা চেকআপ করে দেখি সে মারা গেছে। আহত অন্যরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।

দিলীপের বড় ভাইয়ে স্ত্রী সন্ধ্যা বালা বলেন, সকালে শ্যাম ও দিলীপ মাছ ধরার বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি করতেছিল। আমি দুজনকেই বার বার থামানো চেষ্টা করি। এ সময় শ্যাম আমাকে ধাক্কা দিলে আমি মাটিতে পড়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। এরপরে কি হয়েছে আমি জানিনা।

শ্যাম দাসের চাচাতো ভাই লক্ষ্মন দাস বলেন, শ্যাম ও দিলীপের মধ্যে বাক বিতান্ডার পরেই দিলীপ লোকজন একত্রিত করে ধারালো অস্ত্র নিয়ে শ্যাম ও তার ভাইদের ওপর হামলা চালায়। শ্যাম দৌড়ে পালাতে গিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে মাটিতে পড়ে গেলে দিলীপ ও তার লোকজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারাত্মভাবে কুপিয়ে জখম করে। এতে শাম মারা যায়।

মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বদরুল আলম মোল্লা বলেন, দুই গ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থালে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।