সিরাজগঞ্জে গর্ভবতী স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

২:৪৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯ দেশের খবর, রাজশাহী

রাজিব আহমেদ, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে রাশিদুল ইসলাম (৩২) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তার এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আজ রোববার দুপুরে সিরাজগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক ফজলে খোদা মোঃ নাজির আসামির অনুপস্থিতিতে এ দণ্ডাদেশ দেন। সাজাপ্রাপ্ত রাশিদুল শাহজাদপুর উপজেলার পোতাজিয়া গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে।

ওই আদালতের অতিরিক্ত রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী এ্যাডভোকেট আনোয়ার পারভেজ লিমন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৯ সালে পোতাজিয়া গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে রাশিদুল ইসলামের সঙ্গে একই উপজেলার আন্দারকোঠা পাড়া গ্রামের রিকশা চালক আব্দুস ছালামের মেয়ে ৯ মাসের গর্ভবতী সালমা খাতুনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর রাশিদুল বাবা-মা ও স্ত্রীকে নিয়ে তার শ্বশুর বাড়ির কাছে দরগাপাড়া গ্রামে ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতে থাকেন।

এরপর থেকে রাশিদুল স্ত্রী সালমা খাতুনের কাছে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন শুরু করেন। এ অবস্থায় সালমা খাতুন ৯ মাসের গর্ভবতী হলে তাকে তার বাবার বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। ২০১১ সালের ২৩ জানুয়ারি রাতে রাশিদুল তার শ্বশুরবাড়িতে এসে ছালমা ও তার ছোট বোন শাপলা খাতুনের সঙ্গে টিভি দেখতে থাকেন। এ অবস্থায় রাত আটটার দিকে বেড়ানোর কথা বলে রাশিদুল তার স্ত্রীকে বাইরে নিয়ে গিয়ে তার শ্বশুর বাড়ির কাছে তারিকুল ইসলামের বাঁশঝাড়ের নিচে মারপিট করে এবং শ্বাসরোধে হত্যা করেন। অনেক খোঁজ করার পর রাত সাড়ে ১২টার দিকে ডোবার কাছে ছালমার মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন।

প্রথমে হত্যাকান্ডটি শশুরবাড়ির লোকজন ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়। এ ঘটনায় ছালমার বাবা আব্দুস ছালাম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। দীর্ঘ শুনানি শেষে বিচারক রোববার এ রায় দেন।