পিরোজপুরে ছাত্রকে অমানবিকভাবে বেত্রাঘাত মাদ্রাসা শিক্ষকের

৯:৩৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯ বরিশাল
Patuakhali

সৈয়দ বশির আহম্মেদ,পিরোজপুর প্রতিনিধি: পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার ধাওয়া ইউনিয়নের সাইফুল উলুম ইসলামিয়া মাদ্রাসায় এক ছাত্রকে অমানবিকভাবে বেত্রাঘাত করেছে শিক্ষক আবু মুসা। দুইটি ছাত্র খেলার সময় একটি ছাত্র যৎসামান্য আঘাৎ প্রাপ্ত হইলে গতকাল শনিবার ১২ ঘটিকার দিকে ওই ছাত্রকে বেত্রাঘাত করা হয় বলে মাদ্রাসা সূত্রে জানা যায়।

সূত্র জানায়, ধাওয়া ইউনিয়নের মোঃ সেলিম তালুকদার এর পুত্র মোঃ ঈছা তালুকদার (৯) অত্র মাদ্রাসার নূরানী দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র। উক্ত মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির ছাত্র মানসুর এর সাথে খেলাধুলার সময় অন্য মানসুর  সামান্য আঘাত প্রাপ্ত হইয়া নূরানী বিভাগের শিক্ষক ক্বারী আবু মুসার নিকট অভিযোগ করিলে ক্বারী আবু মুসা অমানবিক ভাবে ঈছার শরীরের বিভিন্ন স্থানে বেত্রাঘাত করে।

পরে অন্যান্য শিক্ষকরা এসে ঈছাকে মুক্ত করে। এতে তার পিটে ও ঘারে জখম হয়। সরেজমিনে ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য মাদ্রাসায় গেলে  অভিযুক্ত ক্বারী আবু মুসাকে মাদ্রাসা না পাওয়া গেলে তাহার সহিত মুঠোফোনে যোগাযোগ করিলে তিনি অভিযোগের সত্যতা স্বিকার করেন।

মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও প্রতিষ্ঠাতা মুফতি ইব্রাহিম হজ্বে থাকার কারনে তাহার সহিত কথা বলা যায়নি। তবে মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা আমজেদ বলেন, শিক্ষকের বেত্রাঘাতে ছাত্রের শরীরে জখম হয়েছে। ঈছাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তার অভিভাবকদের বাড়ীতে গিয়ে আমরা বিষয়টি মিমাংশার ব্যবস্থা করার উদ্যোগ গ্রহন করিয়াছি।