মানিকগঞ্জে আলোচিত নয়ন হত্যা: এক বন্ধুর যাবজ্জীবন, অন্যজনের ১০ বছর কারাদন্ড

১০:২৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯ Uncategorized
Manikganj

দেওয়ান আবুল বাশার, স্টাফ রিপোর্টার:  দুপুরে মানিকগঞ্জে চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্র নয়ন হত্যা মামলার রায় ঘোষণা হয়েছে, রায়ে নয়নের বন্ধু হৃদয়ের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দিযেছেন আদালত। একই মামলায় তার অপর বন্ধু রাকিবকে ১০ বছরের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

আসামীদের উপস্থিতিতে, রোববার দুপুর ৩ টার দিকে জনাকীর্ণ আদালতে  মানিকগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ মমতাজ বেগম এই রায় প্রদান করেন।

যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আসামীর নাম মো. রাকিব নূর হৃদয় (১৯)। সে মানিকগঞ্জ পৌরসভার বান্দুটিয়া এলাকার মৃত আইয়ুব আলীর ছেলে। ১০ বছরের কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামী একই এলাকার আসাদুজ্জামান সালামের ছেলে মো. রাকিব (১৯)।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৩ সালের ২৫ নভেম্বর রাত সাড়ে ১১টায় বান্দুটিয়া গ্রামের মাজেদুল ইসলাম মজিদের ছেলে মারুফ হাসান নয়নের বাড়ীতে নয়ন তার দুই বন্ধু হৃদয় ও রাজুকে নিয়ে একসাথে ঘুমায়। সকালে ঘুম থেকে উঠে হৃদয় ও রাজু তাদের বাসায় যাওয়ার আগে হৃদয়ের ফোন খুঁজে না পেয়ে হৃদয় নয়নকে তার মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগ করে।

নয়ন মোবাইল ফোন নেয়নি বলে জানালে নয়নের সাথে তাদের কথাকাটাটি হয় এবং এক পর্যায়ে হৃদয় নয়নকে দেখে নিবে বলে হুমকী দিয়ে তারা নিজ নিজ বাড়িতে চলে যায়। পরের দিন বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে শাইলী পাড়া এলাকার সামছুলের দোকানের সামনে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে হৃদয় ও রাকিব নয়নকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে।

পরে এলাকাবাসী রক্তাক্ত অবস্থায় নয়নকে উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। নয়নের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে একদিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৭ নভেম্বর রাতে নয়ন মারা যায়।

এই ঘটনায় ২৭ নভেম্বর, নয়নের চাচা মো. ফরিদ আল মাহমুদ বাদী হয়ে হৃদয় ও রাকিবের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর হৃদয় ও রাকিবকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন।

Loading...