দুদকের সাবেক ডিডি আহসান আলীকে আটকের দাবী: না মানলে বন্দর অচল করে দেয়ার হুমকী

১০:৪৮ অপরাহ্ণ | রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯ খুলনা
Benapole photo

মহসিন মিলন , বেনাপোল প্রতিনিধি: দুদকের সাবেক ডিডি আহসান আলীকে আটকের দাবীতে আজ রোববার সকালে বন্দর নগরী বেনাপোল কাস্টমস হাউসের সামনে বন্দর ব্যবহারকারী ৭ টি সংগঠন মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করেছেন।

মানববন্ধনে কাস্টমস অফিসার্স এসোশিয়েশনের কর্মকর্তারাও অংশ গ্রহন করেন। মানব বন্ধন থেকে নেতৃবৃন্দ আগামী ৭ দিনের মধ্যে আহসান  আলীকে গ্রেফতার করা না হলে বৃহওর কর্মসূচী দিয়ে বেনাপোল  বন্দর অচল করে দেয়ার হুমকী দেয়।

মানব ব›ধনে অংশ গ্রহন করেন বেনাপোল কাস্টমস সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশন, আমদানি রফতানি কারক সমিতি, বন্দর হ্যন্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়ন, সিএন্ডএফ এজেন্টস কর্মচারী ইউনিয়ন, ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন,ঝিকরগাছা- বেনাপোল ট্রাক মালিক সমিতি ও চট্রগ্রাম বিভাগীয় সমিতি।

মানববন্ধন চলাকালে বেনাপোল বন্দর দিয়ে দু দেশের মধ্যে বন্ধ ছিল আমদানি রফতানি বানিজ্য।

মানব বন্ধন শেষে নেতৃবৃন্দ বলেন, আহসান আলীর অর্থ বিনিয়োগে রিতু ইন্টারন্যাশনাল ও জেড এইচ কর্পোরেশন এর নামে আমদানি করা ৩১টি পণ্যচালানের বিপরীতে  ২ কোটি ২ লাখ ৭০৮ টাকার রাজস্ব ফাকির তদবিরে ব্যর্থ  হয়ে বেনামে দুদুক, রাজস্ব বোর্ড সহ বিভিন্ন দফতরে বেনাপোলের কাষ্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন এবং তা বিভিন্ন্  পত্র পত্রিকায় সরবরাহ করেন ।

কমিশনার সহ এ দপ্তরের অন্যান্য কর্মকর্তাদের ভয়ভীতি, এসএমএস ও সশরীরে এসে কমিশনারকে চাপ সৃষ্টি করেন। ফলে কাস্টমস হাউসের কমিশনার শুল্কায়ন কাজে মনোনিবেশ করতে ব্যর্থ হওয়ায় বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানী কমে গিয়ে বড় ধরনের ধ্বস নেমেছে রাজস্ব আদায়ে।

এছাড়া বেনাপোল কাস্টমস হাউস কর্তৃক আটককৃত ২.৫ মে. টন ভায়াগ্রার চালান  ছেড়ে দেয়ার জন্য আহসান আলীর নেতৃত্তে একটি সংঘবদ্ধ চক্র কমিশনা কে চাপ প্রয়োগ করে ব্যর্থ হয়। পরে তারা বেনাপোল কাস্টম হাউসের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত মিথ্যাচার, অপপ্রচার ও প্রতিশোধমূলক কর্মকান্ড শুরু করে।

মানববন্ধনে বক্তারা আরো বলেন, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আহসান আলীকে আটক করা না হলে আরো বৃহওর কর্মসূচী দিয়ে বন্দর অচল করে দেয়ার হুমকী প্রদান করেন।

এর আগে গত বুধবার সকালে বেনাপোল পোর্ট থানার আহসান আলীর বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন বেনাপোল কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।