৭ বছর পর ৩০ টন ইলিশের প্রথম চালান ভারতে

৪:৩১ অপরাহ্ণ | সোমবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৯ খুলনা
Benapole

মহসিন মিলন ,বেনাপোল প্রতিনিধি: দুর্গাপূজা উপলক্ষে শুভেচ্ছা হিসেবে আজ সোমবার দুপুরে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ইলিশের  প্রখম চালান রফতানি হয়েছে ভারতে। ৮টি ট্রাকে করে  ৩০ হাজার ৫৬০ কেজি ইলিশের চালান  বেনাপোল বন্দরে এসে পৌছালে কাস্টমস কর্মকর্তারা দ্রুত আনুষ্ঠানিকতা শেষে করে রফতানির অনুমতি প্রদান করেন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়’র সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন জানান, ৭ বছর পর বাংলাদেশের পক্ষ থেকে পশ্চিমবঙ্গের কলকাতাকে শুভেচ্ছা হিসেবে ভারতে ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশ পাঠানোর অনুমোদন দেয় সরকার।

প্রতিকেজি ইলিশের মুল্য ধরা হয়েছে ৬ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশের রফতানি কারক প্রতিষ্ঠান একোয়াটিক রিসোর্স লি: ঢাকা ও ভারতের আমদানি কারক প্রতিষ্টান নাজ ইমপেক্স ইন্ডিয়া প্রা: লি: কোলকাতা।

সিএন্ডএফ এজেন্ট এমি এন্টারপ্রাইজ’র মালিক  মহিতুল হক জানান, ইলিশ শুধু একবারই পাঠানো হচ্ছে।বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা ভারতের কলকাতায় ইলিশ নিয়ে যাবেন। পরে সেখানকার বাজারে তা বিক্রি করবেন। মূলত কলকাতার বাজারেই এই ইলিশ বিক্রি হবে। ২০১২ সালের পর থেকে ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ। এর পর থেকে বৈধভাবে বাংলাদেশের ইলিশ আর কলকাতায় যায় না।

কলকাতায় ইলিশ ইমপোর্টার্স  এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আনোয়ার মকসুদ বলেন, ২০১২ সালে বাংলাদেশ সরকার ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। এবার বাংলাদেশ সরকার পশ্চিমবঙ্গে ৫০০ টন ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে শুভেচ্ছা হিসেবে। এই ইলিশ কয়েক ধাপে আগামী ১০ অক্টোবরের মধ্যে পৌঁছাবে পশ্চিমবঙ্গে। বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে ইলিশ যাচ্ছে কলকাতায়। এরপর এই ইলিশ চলে যাবে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন বাজারে। এ বছর পশ্চিমবঙ্গে তেমন ইলিশ ধরা পড়েনি। গত বছর যে ইলিশ ২০০ রুপি কেজিতে বিক্রি হয়েছিল, এবার সেই ইলিশ ৫০০ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে।