শান্তিতে নোবেল পাওয়ার সম্ভাব্য চার বিজয়ী

৯:৩১ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, অক্টোবর ১১, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ চলতি বছরে নোবেল পুরস্কার মোট ছয় ক্যাটাগরির মধ্যে চারটির বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ক্যাটাগরি নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে আজ শুক্রবার। কে হবেন এবারের শান্তিতে নোবেলজয়ী তা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য সম্ভাব্য বিজয়ীর তালিকা করেছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বরাতে তালিকার প্রথম সারিতে থাকা চারজনের নাম প্রকাশ করেছে, এবার তাদের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

তালিকায় সবার প্রথমের নামটি হচ্ছে সম্প্রতি বহুল আলোচিত এক কিশোরীর। যার নাম গ্রেটা থানবার্গ, পড়াশোনা করে সুইডেনের একটি স্কুলে। জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে আন্দোলনরত কিশোরী গ্রেটাকে নিয়ে এ অনুমান সঠিক হলে সে হবে সর্বকনিষ্ঠ নোবেল জয়ী।

সম্প্রতি দুটি পুরস্কার পেয়েছে গ্রেটা। তার একটি হলো লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকার বিষয়ক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সর্বোচ্চ সম্মাননা পুরস্কার। অপরটি সুইডেনের বিকল্প নোবেলখ্যাত রাইট লাইভলিহুড অ্যাওয়ার্ড- ২০১৯।

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় জোরালো পদক্ষেপ নিতে হবে পার্লামন্টের সামনে এমন দাবি তুলে প্রথমবার শিরোনাম হয়ে সবার নজরে আসে সে। তারপর থেকে সক্রিয় ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে তাকে।

নোবেল শান্তি পুরস্কারের ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্য মতে, এ বছর নোবেল পুরস্কারের জন্য ৩০১টি মনোনয়ন জমা পড়েছে। যার মধ্যে ২২৩ জন ব্যক্তি এবং বাকি ৭৮টি প্রতিষ্ঠান। তবে গত ৫০ বছর ধরে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করার আগে মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করে না নোবেল প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ।

তবে এত মানুষ মনোনয়ন পেলেও বিশেষজ্ঞরা বাজি ধরছেন কিশোরী গ্রেটা থানবার্গের পক্ষে। তাদের দাবি এবারের নোবেল পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি তারই। লন্ডনভিত্তিক নামকরা বাজিকর প্রতিষ্ঠান কোরাল গ্রেটার পক্ষে ১/২ এ বাজি ধরেছে। প্রতিষ্ঠানটি বুধবার জানিয়েছে, এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য গ্রেটা থানবার্গের পক্ষে বাজি পড়েছে ৯৬ শতাংশ। তাছাড়া তারা নিজেরাও মনে করছে এবারের নোবেল উঠছে গ্রেটার হাতে।

লন্ডনভিত্তিক আরেক অনলাইন বাজিকর প্রতিষ্ঠা বেটফেয়ারের অনুমান অনুযায়ী, এবারের শান্তিতে নোবেলের জন্য তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ। যিনি প্রতিবেশী ইরিত্রিয়ার সঙ্গে দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্ব নিরসেন কারিগর হিসেবে বিবেচিত।

উইলিয়াম হিলের অনুমান এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কার পাওয়ার ক্ষেত্রে ব্রাজিলের আদিবাসী নেতা ও পরিবেশ আন্দোলনকর্মী রাওনি মেতুকতিরে নামও উপরে আছে। যিনি বিশ্বের সবচয়ে বড় চিরহরিৎ বন রক্ষায় প্রচারণা চালিয়ে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে।

তালিকায় আরও একটি নাম উপরের দিকে রয়েছে। তিনি হলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন। ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে এক বন্দুকধারীর হামলার পর সাহসী পদক্ষেপ আর মহানুভবতার জন্য তিনি গোটা বিশ্বের প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন।

এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কার জয়ীর নাম জানতে অপেক্ষা করতে হবে শুক্রবার নরওয়ের স্থানীয় সময় সকাল ১১টা (বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টা) পর্যন্ত।

সময়ের কণ্ঠস্বর/ফয়সাল

Loading...