ওয়ারেন্টভুক্ত ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী নির্বাচনে বৈধ প্রার্থী!

১১:০৩ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, অক্টোবর ১৩, ২০১৯ দেশের খবর, রাজশাহী

রাজিব আহমেদ, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: আশ্চর্যজনক হলেও সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার ৬ নং পোরজনা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ওয়ারেন্টভুক্ত ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী বৈধ প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

জানাযায়, আগামী ১৪ অক্টোবর শাহজাদপুর উপজেলার হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়ন ও পোরজনা ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীদের নির্বাচন কমিশন কর্তৃক যাচাই বাছাইয়ের পর প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয়। প্রতিক নিয়ে প্রার্থীদের প্রচারণার নির্ধারিত সময় শেষ হয়েছে গতকাল শুক্রবার রাত ১২ টায়। এরই মধ্যে বেরিয়ে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

নির্বাচন কমিশন কর্তৃক বৈধ প্রার্থীদের তালিকায় ফৌজদারি মামলায় চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, সিরাজগঞ্জ কর্তৃক ২ বছরের সশ্রম কারাদ- প্রাপ্ত আসামী ইউপি সদস্য প্রার্থী মোঃ নুর ইসলামের (টিউবওয়েল প্রতিক) নাম রয়েছে। গত ২ সেপ্টেম্বর একটি ফৌজদারি মামলায় ইউপি সদস্য প্রার্থী মোঃ নুর ইসলামকে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ শাহাদৎ হোসেন পলাতক আসামী হিসেবে ২ বছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। রায় ঘোষণার মামলা নং- জি,আর- ১৯৪/২০১০ এবং রায় নং- ১-৪৬/১৯ ।

মামলা সূত্রে জানাযায়, গত ৫ নভেম্বর ২০১০ সালে আসামী নুর ইসলাম পল্লী বিদ্যুতের লাইনম্যান আলী আহম্মেদ খান ও নুরুন্নবীকে মারধর ও রক্তাক্ত জখম করে এবং মালামাল লুট করে। এর জের ধরে পরবর্তীতে মামলা হলে আদালত এ রায় দেন।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষণা অনুযায়ী “যদি কোনো ব্যক্তি কোনো ফৌজদারি বা নৈতিক স্খলনজনিত অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়ে অন্যূন দুই বছর কারাদন্ডে দন্ডিত হন এবং মুক্তি পাওয়ার পর যদি পাঁচ বছর সময় অতিবাহিত না হয় তাহলে তিনি নির্বাচনের অযোগ্য হবেন।”

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য প্রার্থী মোঃ নুর ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান, সব জায়গা ম্যানেজ করেই নির্বাচন করছি। আপনি আপনার বিকাশ নাম্বার দেন টাকা পাঠিয়ে দিচ্ছি।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রত্যেক প্রার্থীর তথ্য জানতে চেয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় চিঠি দেওয়া হয়েছিল। থানা থেকে প্রদানকৃত প্রতিবেদনে তার বিরুদ্ধে কোন প্রকার আপত্তিকর তথ্য না পাওয়ায় তার প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আতাউর রহমান জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, তবে খতিয়ে দেখছি।

Loading...