• আজ ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কাপাসিয়ায় চাঁদা দিতে না পারায় দোকান বন্ধ

১:২৩ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫, ২০১৯ ঢাকা
Gazipur

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর: গাজীপুর কাপাসিয়া উপজেলার ধলাঘর এলাকায় এক দোকানীর কাছে স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তির চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে। দাবিকৃত চাঁদার টাকা দিতে না পারায় প্রায় ২মাস ধরে দোকান করতে পারছে না ভুক্তভোগী নজরুল সর্দার(৪৩)। নজরুল তরগাওঁ ইউনিয়নের উত্তর খামের  এলাকার আছমত আলীর ছেলে।

এ বিষয়ে ভুক্ত ভোগী নজরুল গাজীপুর জেলার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে একটি মামলা করেছেন। যার নম্বর সিআর ৩৬৯/১৯।

ভুক্তভোগী নজরুল সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, গত ১৬ জুলাই ২০১৯ নিজের চায়ের দোকানে অবস্থান করা অবস্থায় ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে হামলা চালান স্থানী সাত্তার, জুয়েল, নাঈম, বিজয়, মার্সেল, ইলিয়াস। হামলায় নজরুল আহত হলে স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ বিষয়ে ১৭ জুলাই কাপাসিয়া থানায় অভিযোগ করলে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের দায়িত্ব দেয়া হয় পুলিশ কর্মকর্তা কাওসারকে।

ভুক্তভোগীর অভিযোগ, তদন্ত কর্মকর্তার সাথে বিষয়টি সমাধানের আশ্বাস দিয়ে সময় নেন স্থানীয় মেম্বার ইলিয়াস মোল্লা। ঘটনার পর থেকে নানা টালবাহানা করে মেম্বার সময় অতিবাহিত করলে বিষয়টি থানায় জানালে তদন্ত কর্মকর্তা অভিযোগটি এফআইআর না করলে নজরুল বাধ্য হয়ে কোর্টে মামলা করেন। বর্তমানে কোর্টের নির্দেশে মামলা তদন্ত করছে পিবিআই।

সরেজমিনে দেখা যায়, ধলাঘর বাজারের উত্তরপাশে ব্রীজ সংলগ্ন মসজিদটির পাশেই নজরুল ইসলামের চায়ের দোকান। জমি মালিকের নিচু জায়গায় ২৬ হাজার টাকার মাটি ভরাট করে মাসিক ভাড়ায় দোকানটি চালু করেন সে।  প্রতিদিন যে পরিমান বেচাবিক্রি হতো তা দিয়েই নজরুলের সংসার খুব ভাল ভাবে চলছিল। কিন্তু চাঁদাবাজদের ভয়ে গত কয়েকমাস ধরে দোকান করতে পারছেন না তিনি। ফলে একদিকে যেমন আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন তিনি অন্যদিকে চাঁদাবাজদের ভয়ে নিজের নিরাপত্তা নিয়ে আশংঙ্কায় আছেন। তিনি দ্রুত তদন্ত পূর্বক আসামীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

স্থানীয় মেম্বার ইলিয়াস মোল্লা ঘটনার মীমাংসা করে দিতে সময় নেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, যেইদিন চেয়ারম্যানকে নিয়ে বসার কথাছিল সেদিন আমার পাশের ওয়ার্ডের আরেক মেম্বার মারা যাওয়ার কারণে বসা হয়নি।  এর মাঝেই নজরুল কোর্টে মামলা করে ফেলে। ফলে আর বিষয়টি  মীমাংসা করা যায়নি। নজরুলের উপর হামলার বিষয়টি তিনি স্বীকার করে বলেন তার উপর হামলা করাটি ঠিক হয়নি। মুঠোফোনে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলায় নজরুলের উপর চড়াও হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে ইলিয়াস জানান, নজরুলের সাথে আমার সর্ম্পক ভালো তাই তার সাথে একটু উচ্চস্বরে কথা বলেছি আর কিছু না।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী পিবিআই কর্মকর্তা এসআই মোবারক সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে চায়ের দোকানদার নজরুলের উপর হামলার সত্যতা পাওয়া গেছে। তবে মেডিকেল সার্টিফিকেট পাওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে। তবে চাঁদা দাবির বিষয়টি তার তদন্তে উঠে আসেনি।  পিবিআই কর্মকর্তার সামনেই প্রতিপক্ষ নজরুলের জিব কেটে ফেলার হুমকির  বিষয়টি স্বীকার করেন এ কর্মকর্তা।

নজরুল দাবি করেন,আসামিরা একাধিকবার পিবিআই কর্মকর্ত া মোবারকের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। এলাকায় আসামিরা নিজেরাই প্রচার করছে যত টাকা লাগে তত টাকা দিয়ে তদন্ত রিপোর্ট তাদের পক্ষে নিবে।

Loading...