• আজ ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘কৃমিনাশক খেয়ে’ বোনের মৃত্যু, ২ ভাই হাসপাতালে

২:১৫ অপরাহ্ণ | শনিবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৯ দেশের খবর, সিলেট

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি- হবিগঞ্জ সদর উপজেলার উচাইল চারিনাও গ্রামে মায়ের হাতের কৃমিনাশক ওষুধ খেয়ে সাথী আক্তার (৬) নামের এক শিশু মারা গেছে। এতে অসুস্থ হয়েছে আরো ২ ভাই। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় ও পরিবার সুত্র জানায়, ওই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ৩ সন্তান রয়েছে। বড় সন্তান হল- তোফাজ্জল (৮), রবিউল (৬) ও সাথী আক্তার (৬)। অভাব অনঘটনের সংসারে হাসি-খুশিতেই কাটচ্ছিল তাদের জীবন। কিন্তু কার্ত্তিক ঝড়ে তাদের সংসার তছনছ হয়ে গেল। শুক্রবার রাতে মা তিন সন্তানকে কৃমির ওষুধ খাওয়ান। কিছুক্ষণ পর তাদের পেটে ব্যথা ও বমি শুরু হয়। এ পর্যায়ে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাথীকে মৃত ঘোষনা করে এবং ২ ভাইকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করে।

নিহত সাথীর বাবা সিরাজুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে স্কুলের ছাত্র/ছাত্রীদেরকে সরকারীভাবে কৃমি নাশক ঔষধ সরবরাহ করা হয়েছিল। ওই ঔষধগুলো আমার ঘরে রক্ষিত ছিল। রাতে আমার স্ত্রী ওই ঔষধ আমার তিন ছেলে মেয়েকে খাওয়ালে তারা তারা অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিক আমরা তাদেরকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসি। এখানে ডাক্তার আমার মেয়েকে মৃত ঘোষণা করেন।

ডাক্তার হায়দার আলী জানান, মেয়াদোর্ত্তীন ওষুধ খেয়ে থাকলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কারনে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে বিস্তারিত বলা যাবে।

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মোঃ মাসুক আলী ঘটনার সতত্যা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পুলিশ প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করতে কাজ করছে। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কোন প্রকার ঔষধ সেবনের ফলে এমনটি হয়েছে।

Loading...