শেষপর্যন্ত ভেঙেই গেল সিদ্দিক-মিমের সংসার

১:০২ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২, ২০১৯ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক- সম্পর্কে নানাভাবে কাদা ছোড়াছুড়ি শেষে অবশেষে বিচ্ছেদ হলো জনপ্রিয় নাট্য অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক ও মডেল-অভিনেত্রী মারিয়া মিমের। ব্যক্তি-স্বাধীনতায় বাধা দেওয়া, নির্যাতন ও পরকীয়ার অভিযোগ তুলে অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমানকে ডিভোর্স দেন মারিয়া মিম।

গতকাল সোমবার মিম তার ফেসবুকে এক পোস্ট দিয়ে তালাকের কথা জানান। এর আগে, গত শনিবার তালাকনামায় স্বাক্ষর করেছেন মিম। তালাকের কাগজটি সিদ্দিকের কাছে পৌঁছাবে আগামীকাল বুধবার (২৩ অক্টোবর)। দু’জনের সিদ্ধান্তেই তালাক হয়েছে বলে জানান মিম।

গত তিন মাস ধরে আলাদা ছিলেন অভিনেতা সিদ্দিক ও মারিয়া মিম। শোনা যাচ্ছিল ভাঙনের সুর। সম্প্রতি মডেলিং করতে না দেয়ার অভিযোগে সিদ্দিককে ডিভোর্স দেবেন বলে জানান মারিয়া মিম। তবে সিদ্দিকও চাননি সংসার ছেড়ে মডেলিং করুক মিম।

সোমবার ফেসবুকে নিজের দাম্পত্য জীবনের ক্ষোভ প্রকাশ করে মিম লিখেন, ‘আজ আমি একজন মেয়ে বলেই আমাকে সব কিছু মেনে নিতে হবে। মেনে নিতে হবে সকল অত্যাচার, সহ্য করতে হবে সকল মানসিক এবং শারীরিক নির্যাতন। শুনতে হবে সকল মিথ্যা অপবাদ। রাতের পর রাত, দিনের পর দিন সবকিছু সহ্য করেছি এবং একা একা কেঁদেছি…’

নিজের সন্তান প্রসঙ্গে মিম লিখেন, ‘আমাদের সেপারেশনের পর থেকে সিদ্দিকুর রহমান আমার একমাত্র আদরের সন্তান আরশ হোসাইনের সঙ্গে দেখা করতে দেয় না এবং কথাও বলতে দেয় না। এই জন্য আমি সিদ্দিকুর রহমানকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠাবো যেন আমার বাচ্চা আমার কাছে থাকে। একমাত্র একটা মা জানে তার সন্তানের সঙ্গে দেখা না করার, কথা না বলা কতটা কষ্টের এবং দুঃখের।’

পরিবারের সম্মতি নিয়ে ভালোবেসে ২০১২ সালের ২৪ মে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্পেনের নাগরিক মারিয়া মিমকে বিয়ে করেন সিদ্দিক। ২০১৩ সালের ২৫ জুন তারা পুত্রসন্তানের বাবা-মা হন। আট বছরের সংসারে তাদের একটি পুত্রসন্তানও রয়েছে। ছেলেটি এখন সিদ্দিকের সঙ্গেই রয়েছেন।

Loading...