• আজ ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ভোলার সেই বিপ্লবের দুই স্বজনের খোঁজ মিলছে না!

১২:০৮ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ভোলা :: ভোলায় বোরহানউদ্দিনের আলোচিত সেই বিপ্লব চন্দ্র শুভ’র ভগ্নিপতি বিধান মজুমদার (৩১) ও বিপ্লবের চাচাতো ভাই সাগরকে (১৯) ডিবির পরিচয়ে তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার দিবাগত রাতে চরফ্যাসনের দুলারহাট থানার রৌদ্রেরহাটের বিধান মজুমদারের পরিচালিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মা জুয়েলার্স থেকে এদের তুলে নেওয়া হয়েছে বলে দাবী করা হয়। এই ঘটনায় বিধানের বাবা বিনয় ভূষণ মজুমদার মঙ্গলবার চরফ্যাসনের দুলারহাট থানায় একটি জিডি করেন। জিডি নং-৭৪৯। বিধানের বাড়ী লালমোহন উপজেলার গজারিয়া বাজারের পশ্চিম চর উমেদ ইউনিয়নে।

বিধানের বাবা বিনয় ভূষন মজুমদার বলেন, সন্ধ্যার পর তার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান মা জুয়েলার্স থেকে তার ছেলে বিধান ও বিপ্লবের চাচাতো ভাই সাগরকে সিভিল পোশাকধারী ৭-৮ জন ডিবির লোক পরিচয় দিয়ে কালো একটি গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়। এর পর গতকাল লালমোহন ও চরফ্যাসন পুলিশ সার্কেল কার্যালয়ে খোজ নিয়ে জানতে পারেন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কোন সদস্য তাদের তুলে আনেননি।

রোদ্রের হাট এলাকার ইউপি সদস্য আশ্রাফুল আলম টুলু বলেন, বিধানের স্ত্রী শিল্পী আমার কাছে ফোন করে জানান সোমবার সন্ধ্যার পর তার স্বামীর পরিচালিত মা জুয়েলার্স থেকে বিধান ও সাগরকে একটি কালো গাড়ীতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তুলে নিয়ে যায়।

আবুবকরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজ উদ্দিন জমাদার বলেন, রৌদ্রেরহাট বাজারের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান র‌্যাব এবং ডিবির পরিচয়ে গাড়ীতে তুলে। এ সময় কয়েকজন ব্যবসায়ী বিধানকে কি কারণে আটক করা হয়েছে জানতে চাইলে তারা জানান বোরহানউদ্দিনের ঘটনায় বিপ্লবের ভগ্নিপতি বিধান ও তার চাচাতো ভাই সাগর কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাচ্ছেন।

চরফ্যাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সামছুল আরেফিন বলেন, বিধান ও সাগরকে তুলে নেয়ার ঘটনা সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না।

দুলারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান পাটওয়ারী বলেন, বিধানের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেন। ঘটনা পর্যবেক্ষনে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ চলছে। তবে বিধান ও সাগরকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তুলে নেওয়ার ঘটনা তার জানা নেই।

Loading...