• আজ ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বাউফলে জাল সনদে প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষক!

৩:৪৯ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৯, ২০১৯ দেশের খবর, বরিশাল

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল প্রতিনিধি- পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার নয়াহাট ভিডিসি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ সাহানুর হোসেনের বিরুদ্ধে জাল শিক্ষা সনদে চাকুরি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমনকি ওই শিক্ষক প্রধান শিক্ষকের পদকে অপব্যবহার করে বিদ্যালয়ের ক্ষুদ্র মেরামতের জন্য বরাদ্ধকৃত টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

সম্প্রতী ওই বিদ্যালয়ের ইসমাইল হোসেন নামে এক অভিভাবক শিক্ষক শাহানুর হোসেনের বিরুদ্ধে এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ দিয়েছেন মহাপরিচালক ও গনশিক্ষা অধিদপ্তর। যার অনুলিপি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ও জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার নয়াহাটা ভিডিসি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ শাহানুর হোসেন এসএসসিতে ১৯৭৮ সালে নওমালা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে মানবিক শাখায় তৃতীয় বিভাগে ও এইসএসসিতে ১৯৮০ সালে বাউফল কলেজের মানবিক শাখা থেকেও তৃতীয় বিভাগে উর্ত্তীর্ণ হয়েছেন।

সরকারী বিধি মোতাবেক রেজিষ্টার প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারি করনের পরে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জারিকৃত পরিপত্র অনুযায়ী প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি পেতে হলে শিক্ষা সনদের যে কোন একটিতে নূন্যতম দ্বিতীয় বিভাগ থাকতে হবে। কিন্তু শিক্ষক শাহানুরের কোন পরীক্ষায় দ্বিতীয় বিভাগ না থাকায় এসএসসি পরীক্ষার সনদ জালিয়াতি করে তৃতীয় বিভাগের স্থানে দ্বিতীয় বিভাগ করে প্রধান শিক্ষক পদে শিক্ষকতা করে আসছেন।

অভিযোগ অস্বীকার করে প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ শাহানুর হোসেন বলেন, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির দ্বন্দ্ব রয়েছে। এর জন্যই একটি মহল আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছে। আমি কোন জাল সনদ দিয়ে পদোন্নতি নেইনি।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রিয়াজুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

Loading...