সংবাদ শিরোনাম
কাপাসিয়ায় আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালিত | আজ তুমি নেই অ্যান্ড ‘আই ডোন্ট কেয়ার: তাহসান | মহানবী (সা:) কে নিয়ে কটুক্তি, কুড়িগ্রামে চরম উত্তেজনা | ইলিয়াস কাঞ্চনকে নিয়ে নিজের মন্তব্যের পক্ষে সাফাই গাইলেন শাজাহান খান | মোবাইল কিনলেই সাথে পেঁয়াজ ফ্রি! | পেঁয়াজ ছাড়া রান্না হলে আওয়ামী লীগ ছাড়াও দেশ চলবে: রাঙ্গা | নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম নিয়ন্ত্রনে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ | বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হচ্ছে: রাষ্ট্রপতি | হাসপাতালে চেয়ার না পেয়ে নিজের কাঁধেই বসালেন অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে! | সাপাহারে সীমান্ত দিয়ে ভারতে অনুপ্রবেশকালে ৩ যুবক আটক |
  • আজ ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বাকৃবির ছাত্ররা নিজ উদ্যোগে সঠিক নামটি লিখলেন সাইনবোর্ডে

৮:৫৪ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, নভেম্বর ১, ২০১৯ শিক্ষাঙ্গন

হাবিবুর রনি, বাকৃবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, নামটি নিয়ে পূর্ব থেকেই জনমনে রয়েছে এক প্রকার বিভ্রান্তি। বিশ্ববিদ্যালয়টি ময়মনসিংহে অবস্থিত হওয়ায় নাম বিকৃত করে অনেকেই বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবর্তে ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবহার করে।

ইতিপূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে এই বিতর্কিত নামটিই প্রকাশ করে আসছে। এ নিয়ে বাকৃবির শিক্ষার্থীদের অভিযোগ ও ক্ষোভ রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। এ বিষয়ে উদ্যোগ নিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বার বার জানানোর পরও কোনো কাজ হয়নি। তবে এ ব্যাপারে প্রশাসনের ব্যর্থতা লক্ষ করে শিক্ষার্থীরা নিজেই উদ্যোগ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিকৃত নাম পরিবর্তনের। বাকৃবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হলের ১ম বর্ষের ছাত্ররা তাদের ফিস্ট উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেইললাইন সংলগ্ন প্লাটফর্মে ঝুলতে থাকা ‘কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়’ সাইনবোর্ড পরিবর্তন করে এমনই এক ভিন্নধর্মী কাজ করেছেন। এ কাজের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও বেশ প্রশংসা পাচ্ছেন তারা।

ওই হলের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম বিকৃতি দূর করতেই এমন উদ্যোগ নিয়েছেন তারা। বুধবার (৩০ অক্টোবর)  সন্ধ্যায় তারা হলের সিনিয়রদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলে রং-তুলি নিয়ে প্লাটফর্মে চলে যায়। এসময় তারা প্লাটফর্মে দীর্ঘদিন ধরে টাঙ্গানো ‘কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়’ নামক সাইনবোর্ডের লেখাটি মুছে রং-তুলি দিয়ে ‘বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়’ লিখে দেয়।

এ ব্যাপারে ওই হলের ১ম বর্ষের ছাত্ররা বলেন, এ কাজটি করার অনেক আগে থেকেই আমাদের পরিকল্পনা ছিল। বিশেষ করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই যখন দেখি সব জায়গায় বাকৃবির নামের বিকৃতি করা হয় তখন থেকেই বেশ খারাপ লাগত। এ ব্যাপারে প্রশাসনকেও সবসময় নিরব থাকতে দেখেছি। আমাদের যেহেতু হলের ফিস্ট উৎসব শুরু হয়েছে, তাই আমরা ভেবেছিলাম এই ফিস্ট উপলক্ষে ভিন্নধর্মী কিছু করব। তবে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নামের বিকৃতি নিয়ে জনসাধারণকে সচেতন করার আগে আমাদেরকে সচেতন হতে হবে। পরিবর্তন শুরু করতে হবে নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস থেকেই।

এ ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও বেশ সাড়া ফেলেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিকৃত নাম পরিবর্তনের এমন ভিন্নধর্মী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন বাকৃবির সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা।

 বিষয়টি উল্লেখ্য করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা লিখেছেন , এ বিষয়টি নিয়ে এতদিন সবাই শুধু মুখে বলেছে কিন্তু কেউ নিজ উদ্যোগে কাজটি করে নি যা করে দেখিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে জুনিয়র ছাত্ররা। এভাবেই সকলের সুস্থ্য চিন্তাধারার মাধ্যমে এগিয়ে যাবে আমাদের প্রাণের বিশ্ববিদ্যালয়। তাই শুধু সমালোচনা নয়, বরং ছোটদের এই উদ্যোগকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সাধুবাদ জানানো উচিত।

Loading...