ফুলবাড়ীতে দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ,ধর্ষক গ্রেফতার

৭:০৪ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, নভেম্বর ৮, ২০১৯ রংপুর
Rangpur

অনিল চন্দ্র রায়, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে নানা বাড়ীতে এসে খালাসহ ভাগ্নিও ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ধর্ষক রাতে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে তাদের ধর্ষণ করে। এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এই ঘটনাটি ঘটে উপজেলার ভাঙ্গামোড় ইউনিয়নের রাবাইতারী এলাকায়। তাদের মধ্যে একজন রাবাইতারী বহুমুখী বালিকা স্কুল এন্ড কলেজ ও একজন নেওয়াশী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী।

অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, মঙ্গলবার রাতে ধর্ষক ভোলানাথ বর্মন (৩৮) ধর্ষিতার বাবার অসুস্থ্যতার সুযোগে ৭ম শ্রেনীর স্কুল পড়–য়া ওই ছাত্রীকে টাকার প্রলোভন দেখিয়ে তাদের বাড়ীর খাবারে চেতনা নাশক ঔষধ মিশিয়ে দিতে বলে এবং জানায় ঔষধ খেলে তার বাবার চোখের অসুখ ভালো হয়ে যাবে। মেয়েটি টাকার লোভে ও বাবার সুস্থ্যতার জন্য সরল বিশ্বাসে রাতে তাদের খাবার সাথে ঔষধ মিশিয়ে দেন। ওই খাবার খেয়ে স্ব-পরিবারে অচেতন হয়ে পড়েন। সে সুযোগে ধর্ষক রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টায় ওই স্কুল ছাত্রীর শোয়ার ঘরে ঢুকে জোর তাকে ধর্ষণ করে। আবার রাত ৩ টার দিকে ধর্ষিতার সঙ্গে শুয়ে থাকা একই বয়সের বোনের মেয়েকে ২য় বার ধর্ষণ করে।

সকালে দুজনেরই পরিবারের সদস্যদের বিষয়টি জানালে পিতা রবিন্দ্রনাথ বর্মন বুধবার থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে ধর্ষককে আটক পুলিশ। সে উপজেলার রাবাইতারী গ্রামের অমুল্য দফাদারের ছেলে ধর্ষক ভোলানাথ বর্মন।

এদিকে ধর্ষিতার মা কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, আমার মেয়ে ও নাতনীকে যে পৈচাষিক নির্যাতন চালিয়েছে তার দৃষ্ট্রান্ত মূলক শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।

ধর্ষক ভোলা নাথ বর্মন জানান, আমি নিদোর্ষ। টাকা পয়সা লেনদেনের জেরে তারা আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ করছে।

ফুলবাড়ী থানার এস আই ও মামলার তদন্তকারী অফিসার হাবিবুর হরমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মামলার ভিত্তিতে ধর্ষককে গ্রেফতার করে শুক্রবার জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে এবং ধর্ষিতার ডাক্তারী পরীক্ষা ও ২২ ধারায় জবান বন্দী রেকর্ডের জন্য জেলা সদরে পাঠানো হয়েছে।

Loading...