‘শেখ হাসিনাকে কটাক্ষ করলে জনগণ কাউকে ক্ষমা করবে না’- কাদের

৮:৫৬ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২, ২০১৯ জাতীয়
kader

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশে শেখ হাসিনা সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী। তাকে নিয়ে কটাক্ষ করলে বাংলাদেশের বহু মানুষের অনুভূতিকে কটাক্ষ করা হয়। তাকে কটাক্ষ করলে জনগণ কাউকে ক্ষমা করবে না।

মঙ্গলবার রাজধানীর ফার্মগেট কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে স্বেচ্ছাসেবক লীগ ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কিছুক্ষণ আগে দুই গ্রুপের মধ্যে বাগবিতন্ডা শুরু হয়। এসময় হাতাহাতি, চেয়ার ছোঁড়াছুঁড়ির ঘটনাও ঘটে। পরে দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

কাদের বলেন, শেখ হাসিনা ও নূর হোসেনকে নিয়ে কেউ কেউ কটাক্ষ করছেন। এ ধরনের কটাক্ষ রাজনৈতিক অনুভূতিতে আঘাত করে। ষড়যন্ত্রকারীদের ষড়যন্ত্র এখনও চলছে। তাদের ষড়যন্ত্র থেমে নেই। অনেকেই শেখ হাসিনা সম্পর্কে ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। এরকম বক্তব্য সহ্য করা হবে না। এ রকম কটাক্ষ রাজনৈতিক পরিবেশকে নষ্ট করে।

নূর হোসেনের গণতন্ত্রের সংগ্রাম সম্পর্কে দেশ ও জাতি জানে মনে করিয়ে দিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, নূর হোসেনের প্রতিও কেউ কেউ আজকে বিরূপ মন্তব্য করেন। আমাদের নেত্রীর বদৌলতে যারা রাজনীতিতে অক্সিজেন পেয়েছেন, তারা নেত্রীকেও কটাক্ষ করেন। কথা মুখ থেকে ফসকে গেলে মুখে আর ফিরে আসে না। যত দু:ক্ষ প্রকাশ করা হোক, যতই অ্যাপোলাইজ করা হোক এ ধরণের দায়িত্বহীন মন্তব্য, কটাক্ষ আমাদের রাজনৈতিক পরিবেশকে নষ্ট করে।

১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডের দায় বিএনপি কোনোভাবে এড়াতে পারে না বলে জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ওই খুনিদের নিরাপদে বিদেশে পাঠিয়েছে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা। এই খুনিদেরকে বিদেশী দূতাবাসে চাকরি দিয়ে পুরস্কৃত করেছে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান। এই খুনিদের যাতে বিচার না হয় তার জন্য ইনডেমিনিটি জারি করেছিলেন তিনি।

Loading...