৯০ বছরের পুরাতন সারদাহ রেলষ্টেশনে লাগেনি আধুনিকতার ছোঁয়া

১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, নভেম্বর ১৮, ২০১৯ দেশের খবর, রাজশাহী

ওবায়দুল ইসলাম রবি, রাজশাহী প্রতিনিধি- রাজশাহী চারঘাট উপজেলার ৯০ বছরের পুরাতন সারদাহ হলিদাগাছি রেল ষ্টেশনে আধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি। সময় মাফিক সারদা ষ্টেশনে ট্রেনের বিরতি না থাকার কারণে চারঘাট, পুঠিয়া ও বাঘা উপজেলার প্রায় ১০ লক্ষ বাসীন্দারা ঢাকা, খুলনা জেলাসহ উত্তরবঙ্গের সাথে প্রয়োজনীয়ও যোগাযোগ করতে পারছে না।

জানা যায়, ১৯২৯ খ্রিষ্টাব্দে উপজেলার সারদাহ রেল ষ্টেশন স্থাপিত হয়। কিন্ত আজ আবদি এই ষ্টেশনের অবকাঠামো এবং ট্রেন চলাচলের নিয়ন্ত্রনের আধুনিকতার কোন উন্নয়ন হয়নি। বর্তমান সরকার দেশের টেকশয় উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। তবে সারদাহ রেল ষ্টেশনে কোন পরিবর্তন হয়নি।

এই ষ্টেশনে ডিজিটাল সেবা, যাত্রীদের বিশ্রামাগার, স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেটের সুবিধা নেই। সর্বপরি জেলার ৩ উপজেলার সাধারণ মানুষরা তাদের কাঙ্কিত ট্রেনের ভ্রমণ করতে পারছে না। সময়ের ব্যবধান এবং অতিরিক্ত অর্থের ব্যায়ের কারনে যাত্রীরা জেলার রেল ষ্টেশনে গিয়ে তাদের সুবিধা নিতে পারছে না। এই ষ্টেশনে রাজশাহী থেকে ঢাকা গামী ট্রেন থামলে বিপিএ’র পুলিশ কর্মকর্তা, রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ কর্মকর্তা, শিক্ষক, ছাত্র এবং স্থানীয়রা নিরাপদ ভ্রমণ করতে পারবে বলে জানান, ষ্টেশন মাষ্টার (গ্রেড-৪) খায়রুল ইসলাম।

দেশের রাজশাহী চারঘাট উপজেলার সারদাহ বহুল পরিচিত নাম। যার কারন হচ্ছে, শতবছরের ঐতিহ্যবাহি বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী (বিপিএ)। এর সাথে যোগ দিচ্ছে রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ (আরসিসি), থানাপাড়া সোয়ালোজ ডেভেল্পমেন্ট সোসাইটি (টিএসডিএস) সহ আম, হলুদ এবং খয়ের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান।

এ বিষয়ে বিপিএ, আরসিসি অফিস সূত্র, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেন, টিএসডিএস এর পরিচালক রায়হান আলী এবং সহকারী পরিচলক মাহমুদা বেগম গিনি বলেন, দেশের প্রধানমন্ত্রী প্রতি বছর সারদার বিপিএতে প্রধান অতিথি হিসেবে বিসিএস পুলিশ এর সমাপনি কুচকাওয়াজ এর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকেন। তদুপরি অনেক বিদেশি অতিথি তাদের ব্যবসার কাজে ঢাকা থেকে এই সারদায় আসেন। কিন্ত ঢাকা থেকে রাজশাহীর সারদার যাত্রার জন্য রেল যোগাযোগ অনেক নিরাপদ, সময় এবং অর্থ সাশ্রয়ী।

প্রসঙ্গত, রাজশাহী থেকে ঢাকার সকালের রেলগুলো যদি সারদা ষ্টেশন যাত্রা বিরতী দেয় তাহলে তিন উপজেলার প্রায় ১০ লক্ষ মানুষের অনেক দিনের আশা পূর্ণ হবে।

Loading...