বাউফলেও লবন নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড, ভিড় সামাল দিতে না পেরে দোকান বন্ধ

৬:১০ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৯ দেশের খবর, বরিশাল

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল প্রতিনিধি- পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় লবন নিয়ে চলছে লঙ্কাকাণ্ড। ‘লবনের কেজি হবে পেয়াজের সমমূল্য’ এমন গুজবে লবন কেনার জন্য মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন লবনের দোকানে। আর পাইকারি  ও খুচরা বিক্রেতারা এ সুযোগে বাড়িয়ে দিয়েছেন লবনের দাম।

উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মঙ্গলবার বেলা ১১টার পর থেকেই হঠাৎ করে লবনের চাহিদা বেড়ে যায় খুচরা বাজারে। বেলা যতই গড়াচ্ছে খুচরা ও পাইকারি দোকানগুলোতে লবন কেনার জন্য ক্রেতারা ভিড় ততই বাড়ছে। লোকজন যে যার সামর্থ মত বস্তায় বস্তায় লবন কিনে মজুদ করছেন। আবার কোন কোন মহাজন ও খুচরা বিক্রেতারা এ সুযোগে বেশি দামে লবন বিক্রি করছেন। ক্রেতাদের ভিড় সামাল দিতে না পাড়ায় উপজেলার কালাইয়া বাজারের কয়েকটি দোকান বন্ধ করে দিয়েছেন দোকানিরা।

কালাইয়া বাজারে লবন কিনতে আসা এমন একজন জাফর ইকবার দিপু। যিনি দুই বস্তা (২৫ কেজি) লবন কিনেছেন। তাকে প্রশ্ন করা হয় আপনি কেন এত লবন কিনেছেন। উত্তরে তিনি জানান, ফেইসবুকে নাকি দিয়েছে লবনের দাম হবে পেয়াজের সমান। তাই বেশি করে কিনে রাখলাম।

কনফিডেন্স লবন কোম্পানির পাইকারী বিক্রেতা শিবানন্দ রায় বনিক বলেন, ফেইসবুকে নাকি এমন একটি গুজব ওঠার কারনেই মানুষ হুমড়ি খেয়ে লবন কিনছে। তবে লবনের দাম আগের মতনই আছে বলে তিনি দাবি করেন।

তবে এ বিষয়ে ফ্রেশ লবন কোম্পানীর বাউফল উপজেলার বিক্রয় প্রতিনিধি রিপন কুমার জানায়, আমি আমার উর্ধতন কর্মকতাদের সাথে কথা বলেই নিশ্চয়তা দিচ্ছি এটা একবারেই গুজব।

বাউফল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দে বলেন, লবন বেশি বেশি বিক্রি হচ্ছে বলে জেনেছি। তবে বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে এমন খবর পাইনি। আমি ঢাকায় অবস্থান করায় বিষয়টি ভারপ্রাপ্ত ইউএনওকে ফোনে জানিয়েছি। বেশি দামে বিক্রি হলে তিনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

Loading...