সংবাদ শিরোনাম
‘বয়ফ্রেন্ড’ সৈকতের সঙ্গে ওই ভবনে প্রবেশ করে রুম্পা: ডিবি | পিরোজপুরে বাসচাপায় অটোচালকসহ নিহত ৩ | পেঁয়াজের দাম বাড়ায় ভারতে খাদ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা | ফেসবুকে দুই কলেজছাত্রীর ‘অনৈতিক’ ফাঁদ, নোয়াখালীতে গ্রেফতার ৩ | একটি পদ্মার ইলিশ কিনলেই এক কেজি পেঁয়াজ ফ্রি! | দিল্লিতে কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৩৫ | সালমান-ক্যাটরিনা এখন ঢাকায়, টিকিটের মূল্য শুনে বিস্মিত ম্যানেজার! | রোহিঙ্গা শিবিরে দুই  ডাকাত দলের গোলাগুলিতে নিহত ১ | গঠনতন্ত্র পরিপন্থী কাউন্সিলের অভিযোগ এনে সংবাদ সন্মেলন করলেন রাজবাড়ী ১ আসনের এমপি | জাবির ভিসির বিরুদ্ধে অভিযোগ যাচাই করা হচ্ছে, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী |
  • আজ ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শার্শায় ৯ লবন ব্যাবসায়ীকে প্রায় ২ লাক্ষ টাকা জরিমানা

৭:৫৪ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১, ২০১৯ খুলনা
Benapole

মহসিন মিলন ,বেনাপোল প্রতিনিধি: যশোরের শার্শা নাভারন ও বাগআঁচড়া বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত সাড়াশি অভিযান চালিয়ে বাগআঁচড়া বাজারের ৬ জন মুদি দোকান মালিক ব্যবসায়ীকে ১লাখ ৮০হাজার টাকা এবং নাভারন বাজারে ৩জন ব্যবসায়ী কে ১৪হাজার টাকা সহ মোট ৯জন কে মোট ১লাখ ৯৪হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

জরিমানা করা বাগআঁচড়া বাজারের প্রতিষ্ঠান গুলো হলো আনোয়ার স্টোরকে ৩০ হাজার টাকা, কবির স্টোর কে ৩০ হাজার টাকা,ফারুক স্টোর কে ৩০ হাজার টাকা, কলিমুল্লাহ স্টোর কে ২০হাজার টাকা, আলী স্টোর কে ৫০হাজার টাকা এবং শফি স্টোর কে ২০ হাজার টাকা সহ ১লাখ ৮০হাজার টাকা। এছাড়া নাভারন বাজারের জুলফিকার ও নেদন কে যথাক্রমে ২ হাজার টাকা করে এবং আঃ কাদের কে ১০ হাজার টাকা সহ ১৪ হাজার টাকা।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনাকারী শার্শা উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা কমিশনার (ভূমি) খোরশেদ আলম চৌধুরী জানান,গতকাল লবনের দাম বাড়ছে বলে গুজব রটিয়ে বাগআঁচড়া বাজারের কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বেশী দামী লবন বিক্রি করেছে এমন খবরের ভিত্তিতে বুধবার (২০ শে নভেম্বর) সকালে উপজেলার নাভারন ও বাগআঁচড়া বাজারে এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে বেশী দামে লবণ বিক্রির সত্যতা পাওয়া যায় এবং দোকানে মেয়াউত্তীন্ন ভোগ্যপণ্য থাকা ট্রেড লাইসেন্স না থাকা, মুল্য তালিকা না থাকায় ভোক্তা অধিকার আইনে দুই বাজারের ৯জন ব্যবসায়ীকে মোট ১লাখ ৯৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

প্রসঙ্গত,সারাদেশে পেঁয়াজের দামের রেশ কাটতে না কাটতেই, এবার গুজব রটিয়ে লবণের দাম বৃদ্ধি করে বিক্রি করছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। ইচ্ছামত দাম বাড়িয়ে দেদারসে বিক্রি করছে ভুক্তভোগী সাধারণ জনগণের কাছে। তবুও তাতে বেশির ভাগ দোকানেই মিলছে না লবন।

এদিকে, বাজরের বিভিন্ন ভোগ্যপণ্যের দোকান ঘুরে দেখা যায়, অনেক দোকানীরা লবণ বিক্রি কমিয়ে দিয়েছে। কারণ জানতে চাইলে তারা বলছে লবণ নেই। আবার কেউ কেউ বলছে লবণের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে তাই বিক্রি হবে না।এতে করে তৈরি করা হচ্ছে কৃত্রিম লবণ সংকট।

খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন, লবনের ডিলাররা লবন নেই বলে বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে। আর পাইকাররা বলছেন,অতিরিক্ত চাহিদার জন্য লবন শেষ হয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোরশেদ আলম জানান,দেশে লবণের পর্যাপ্ত মজুদ আছে। লবণের দাম বেড়ে গেছে এটা স্রেফ গুজব ছাড়া অন্য কিছুইনা । এক ধরনের অসাধু মানুষ সরকারকে বিব্রত অবস্থা ফেলতে এমন সব ভিত্তিহীন গুজব ছড়াচ্ছে।এ সব গুজবে কান না দিতে এবং বিভ্রান্ত না হয়ে সকলকে সজাগ থাকতে অনুরোধ করেন।

তিনি আরো বলেন, এমন অসাধু ব্যবসায়ীদের উপর উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে ভ্রাম্যমান আদালত অব্যাহত থাকবে।

Loading...