• আজ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সুনামগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক ডাকাত সর্দার নিহত

১:৩১ অপরাহ্ণ | সোমবার, নভেম্বর ২৫, ২০১৯ দেশের খবর, সিলেট

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি- সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক ডাকাত সর্দার নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৫ পুলিশ সদস্য।

রবিবার দিবাগত রাতে উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের ভূইগাওঁ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম লকন্দর আলী (৩৪)। সে উপজেলার সিংচাপইর ইউনিয়নের জিয়াপুর-হবিপুর গ্রামের কলমদর আলীর ছেলে।

পুলিশ জানায়, রোববার গভীর রাতে ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোস্তফা কামালের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্যরা সিংচাপুর এলাকায় লকন্দর আলীর অবস্থান সনাক্ত করে সেখানে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। তাকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তার গ্রুপের সদস্যদের নিকট বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে বলে স্বীকার করে।

পুলিশ আরো জানায়, রাতে ছাতক থানার ওসি মোস্তফা কামালের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা গ্রেফতারকৃত ডাকাত লক্ষণদ্দরকে সাথে নিয়ে বোকারভাঙ্গা এলাকায় অস্ত্র উদ্ধারে গেলে তার সহযোগি ১০/১২জন ডাকাতদল আগ্নেয়ান্ত্র নিয়ে পুলিশের উপর গুলিবর্ষণ শুরু করে। এ সময় গ্রেফতারকৃত ডাকাত লক্ষণদ্দর পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের উপর গুলিবর্ষণ করতে থাকে এসময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। এ সময় পুলিশ ও ডাকাতদল ৬০ রাউন্ড গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে।

এ সময় ডাকাতদের গুলিতে ৫ পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হয়েছেন। পরবর্তীতে ডাকাতদল পালিয়ে গেলেও ৩ শত ফিট দূরে ডাকাত লক্ষণদ্দরের গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ। পরে নিহত ডাকাতের লাশ পুলিশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এখন লাশ ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

গুলি বিনিময় ও ডাকাত গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহতের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তফা কামাল। তিনি জানান, রবিবার রাত প্রায় দেড়টার দিকে ভূইগাওঁ এলাকায় ডাকাতদলের সাথে বন্দুকযুদ্ধ হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। লকন্দর কুখ্যাত ডাকাত। তার বিরুদ্ধে ১২টি ডাকাতি মামলা রয়েছে।

Loading...