• আজ ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নোয়াখালীতে বিদেশি নাগরিকের কাছ থেকে ঘুষ আদায়, পুলিশ কর্মকর্তা ক্লোজড

৯:১৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, ডিসেম্বর ১, ২০১৯ আলোচিত

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই শিশির কুমার বিশ্বাসকে নোয়াখালী পুলিশ লাইন্সে ক্লোজ করা হয়েছে। রোববার বিকেল ৩টায় নোয়াখালী পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন নোয়াখালী পুলিশ লাইনে তাকে ক্লোজ করার নির্দেশ দেন।

আরব আমিরাতের নাগরিক আলী আহম্মদকে হয়রানি ও দুবাইয়ের দুই প্রবাসীকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে ঘুষ গ্রহণ ও বিমানের টিকিট হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে তাকে ক্লোজ করা হয়েছে।

জানা যায়, আমিরাতের শেখ পরিবারের এক নাগরিক মোহাম্মদ আলী আহম্মদ আবদুল্লাহ শেখসহ তার কর্মচারী দুবাই প্রবাসী ফাতেমা বেগমের পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকে। কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই শিশির কুমার বিশ্বাস বহিরাগত কয়েকজন মিলে আরব আমিরাতের নাগরিকসহ ওই পরিবারের সদস্যদেরকে থানার ওসি পরিচয় দিয়ে গ্রেফতার করার ভয়-ভীতি দেখিয়ে ২০ হাজার টাকা দাবি করে।

এসময় উপায়ান্তর না দেখে প্রবাসী পরিবারের সদস্যরা এসআই শিশির কুমার বিশ্বাসকে ১২হাজার টাকা দেয়। বিষয়টি ভুক্তভোগি পরিবার তাৎক্ষণিকভাবে (শুক্রবার রাতে) নোয়াখালী পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন ও ডিআইও (ওয়ান) মো. আসাদুজ্জামানকে অবহিত করেন। অভিযোগটি প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় নোয়াখালী জেলা পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত শিশির কুমার বিশ্বাসকে প্রত্যাহার করে নোয়াখালী পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করে। উক্ত অভিযোগের বিষয়ে সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী আবদুর রহিম অভিযোগটি তদন্ত করছেন।

নোয়াখালীর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী আবদুর রহিম কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই শিশির কুমার বিশ্বাসকে প্রত্যাহারের বিষয় নিশ্চিত করেন।

তিনি আরো জানান, এসআই শিশির কুমারের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের তদন্ত এখনও শেষ হয়নি। তবে প্রাথমিকভাবে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় শিশিরকে থানা থেকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নোয়াখালী জেলা পুলিশের কোনও সদস্য কিংবা কর্মকর্তা কোনও প্রকার অনৈতিক ও পুলিশের শৃঙ্খলা বিরোধী কাজে লিপ্ত হলে তাকে শাস্তি পেতেই হবে।

Loading...